নিউজকলকাতাটেক নিউজ

মৌড়িগ্রাম ডিপোয় বন্ধ হল রিফিলিং। সন্ধ্যার পর দক্ষিণবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলার ভোগান্তি বাড়তে পারে।

নিজস্ব প্রতিবেদন: অয়েল ট্যাংকার মালিক সংগঠনের ধর্মঘটের দরুন আজ থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখা হলো ডিজেল এবং পেট্রোলের সরবরাহ ব্যবস্থা। জানা গিয়েছে গতকাল সকাল থেকে হাওড়ার অন্তর্গত মৌড়িগ্রামে ইন্ডিয়ান অয়েলের ডিপোতে ট্যাংকার মালিকরা পেট্রোল এবং ডিজেলের ট্যাংকার গুলিতে রিফিলিং করতে নিষেধ করে দিয়েছেন। ‌ এর ফলে দুই ২৪ পরগনা সহ হাওড়া ,কলকাতা এবং নদীয়াতে পেট্রোল-ডিজেলের সরবরাহ অনেকটাই বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।

ওয়েস্টবেঙ্গল ট্যাংকার অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে যে, গতকাল বৃহস্পতিবার ইন্ডিয়ান অয়েল এর তরফ থেকে একটি টেন্ডার ডাকা হয়েছিল, এই টেন্ডারে ট্রান্সপোর্ট রেট যথেষ্ট হ্রাস করে দেওয়া হয়েছে। যার দরুন এর প্রতিবাদ জানাতে ট্যাংকার মালিকরা পেট্রোল এবং ডিজেলের রিফিলিং করতে সম্মত হননি।পেট্রোল এবং ডিজেলের ট্যাংকারে রিফিলিং না হওয়ার দরুন পেট্রল পাম্পগুলি তে পেট্রোল এবং ডিজেলের সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

আরও পড়ুন-রাজ্যে আরও দুটি পুরসভা তৈরির বিজ্ঞপ্তি জারি করল নবান্ন

এদিকে পেট্রোল পাম্প মালিকদের সংগঠন ওয়েস্ট বেঙ্গল পেট্রল ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে যে ট্যাংকার মালিকদের এই ধর্মঘটের ফলে সন্ধ্যার পর থেকেই কলকাতা এবং হাওড়ার বিভিন্ন জায়গার পেট্রোল পাম্পগুলিতে পেট্রোল এবং ডিজেলের ঘাটতি হতে শুরু করবে। এর ফলে যথেষ্ট সমস্যায় পড়তে চলেছেন মানুষজন।এদিকে ওয়েস্টবেঙ্গল ট্যাংকার অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে যে ৬০ টি ট্যাংকার কে বসিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে ।

আরও পড়ুন-“শিশুদের আত্মহত্যায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ।”- চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট পেশ করল এনসিআরবি

এরপরে ট্রান্সপোর্ট রেট কমিয়ে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট সমস্যার মধ্যে পড়েছেন ট্যাংকার মালিকরা। তাই যতক্ষণ পর্যন্ত তাদের দাবি না মানা হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত এই ধর্মঘট জারি থাকবে।এদিকে হাওড়া এবং কলকাতার বেশিরভাগ পেট্রল পাম্পগুলি যদি পেট্রোল এবং ডিজেলের ঘাটতির মুখে পড়ে, তাহলে পরিবহন ব্যবস্থায় যথেষ্ট সংকটজনক পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে বলে আশঙ্কা করছে মানুষজন।

Related Articles

Back to top button