আম সেদ্ধ বা পোড়ানোর ঝামেলা ছাড়াই কাঁচা আমের শরবত টক ঝাল মিষ্টি, রইলো স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতি ভিডিও সহ!

আম সেদ্ধ বা পোড়ানোর ঝামেলা ছাড়াই কাঁচা আমের শরবত টক ঝাল মিষ্টি, রইলো স্টেপ বাই স্টেপ পদ্ধতি ভিডিও সহ!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-শীত পেরিয়ে গ্রীষ্মের আগমন ঘটে গেছে । তখন এই গ্রীষ্মে রোদে সামান্য পরিমাণ বাইরে বেরোলেই আমরা বুঝতে পারি যে ঠিক কতটা পরিমাণে উত্তাপ গ্রাস করছে প্রতিনিয়ত আমাদের । প্রাকৃতিক সম্পত্তির উপর বারবার আঘাত হেনে আমরা নিজেদের বিপদ নিজেই ডেকে এনেছি । একথা অস্বীকার করার কোনো উপায় নেই । তাই প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে তাপের পরিমাণ ।

গ্রীষ্মকাল আসতে না আসতেই দোকানে কোলড্রিংস বা পানীয় জিনিস গুলো বিক্রি বাটা ব্যাপক পরিমাণে বেড়ে যায় । দই লস্যি তাছাড়া বিভিন্ন সফট ও হার্ড ড্রিংকস এর বিক্রির পরিমাণ তুমুল পরিমাণে বেড়ে যায় । কিন্তু যে জিনিসটি শরীরের পক্ষে সব থেকে বেশি উপকারী সেটি হল আমের পোড়ার শরবত । আম পোড়ার শরবত বানানো যায় কিভাবে অনেকেই হয়তো জানেন না । জানাবো প্রতিবেদনের মাধ্যমে ।

আম পোড়ার শরবত করার জন্য প্রথমে আপনাকে গ্যাসের ওভেনে আমকে ভালো করে পুড়িয়ে নিতে হবে তাড়াহুড়ো করবেন না । কারণ যদি আপনি তাড়াহুড়ো করেন তাহলে উপরের অংশ পুড়ে গেল ভেতরের অংশ কিন্তু কাছ রয়ে যাবে । যার ফলে এর স্বাদ একদম ভালো লাগবে না । তাই অধিক সময় ধরে আমকে ভালো করে গ্যাসের আগুনে পোড়ান । তারপর অন্য একটি পাত্রে রাখুন ঠাণ্ডা করার জন্য।

আরও পড়ুন-বাড়িতেই দারুন কায়দায় গ্রাম্য পদ্ধতিতে কাঁচা আম দিয়ে এইভাবে আচার তৈরি করলে তার স্বাদ হয় দারুন, রইলো পদ্ধতি!

পোড়া আমের খোসা যাতে তাড়াতাড়ি সেরে যায় তার জন্য আপনি তার মধ্যে জল দিয়ে দিন । এরপর খোসা ছাড়িয়ে আমের শাস কে আলাদা করে নিন ।এরপর একটি ব্লেন্ডারে কিছুটা ধনেপাতা এবং কিছু শুকনো কাঁচালঙ্কা দিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে নিন এবং সেই পেস্ট এর মধ্যে যোগ করে দিন আগে থেকে আলাদা করে রাখা আমের শাস ।

তারপর সামান্য পরিমান জল দিয়ে পুনরায় ব্লেন্ড করে নিন সেটিকে ।তারপর তার মধ্যে যোগ করে দেন এক চামচ এক চামচ লঙ্কা গুঁড়ো এক চামচ লেবুর রস ইত্যাদি । তারপর পুনরায় আরো একবার ব্লেন্ড করে অন্য একটি পাত্রে তুলে রাখুন তাহলেই তৈরি হয়ে যাবে পোড়া আমের শরবত যা আপনি অনায়াসে বাড়িতে আসা লোকজন কে পরিবেশন করতে পারেন ।