নিউজপলিটিক্সরাজ্য

“রত্না চট্টোপাধ্যায়‌ও নাকি পরকীয়ায় যুক্ত।”- দাবী করলেন শোভন-বৈশাখী

নিজস্ব প্রতিবেদন: যেই বয়সেই হোক না কেন প্রেম কখনোই বয়স মানে না। কিন্তু প্রেমে মগ্ন হ‌ওয়ার পাশাপাশি প্রতিটি মানুষের কিছু স্বাভাবিক দায়িত্ববোধ রয়েছে কর্তব্য রয়েছে যেগুলো তাকে পালন করতে হয়। অনেক সময় গভীর প্রেমে আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে গিয়ে মানুষ ঠিক বেঠিক বিবেচনা করতে অসমর্থ হয়। ঠিক এমনই ঘটনা ঘটেছে প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সাথে।

বর্তমানে তার দাম্পত্য জীবনে যথেষ্ট চড়াই-উৎরাই দেখা দিয়েছে। তার স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায় এবং ছেলেমেয়ের সঙ্গ ত্যাগ করে শোভন বর্তমানে গোলপার্কের এক বহুতলে থাকেন। তাঁর সাথে ছায়াসঙ্গী হয়ে থাকেন প্রাক্তন অধ্যক্ষা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। সিবিআই গত ১৭ ই মে নারদা মামলায় গ্রেফতার করেছে ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কে।

আরও পড়ুন-“দিলীপ ঘোষ পাগল, মাথামোটা।”- বললেন তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়।

গ্রেপ্তার করে তাদেরকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল নিজাম প্যালেসে সিবিআই দপ্তরে। তখনই স্বামীর গ্রেপ্তারের খবর শুনে স্থির থাকতে পারেননি রত্না চট্টোপাধ্যায় । সাথে সাথে উকিল কে সাথে নিয়ে তিনি ছুটে গিয়েছিলেন নিজাম প্যালেসে। রত্না চট্টোপাধ্যায় দাম্পত্যে সমস্ত ওঠাপড়া কে একপাশে সরিয়ে রেখে পাশে দাঁড়িয়েছিলেন শোভনের।

কিন্তু সেই রত্না চট্টোপাধ্যায় এর উপরেই এবার কালিমা লেপন করতে চাইছেন শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় বেশ কয়েকটি ছবি পোস্ট করে তার ক্যাপশন দিয়েছেন যে , ‘রত্নার প্রেমিক।’ ওই ছবিতে দেখা গিয়েছে রত্না চট্টোপাধ্যায়ের সাথে এক ব্যক্তি দোলনায় বসে রয়েছেন। এই ছবিগুলিতে আরো অন্যান্য কয়েকজনের উপস্থিতি রয়েছে।

আরও পড়ুন-“দেবাংশু কার্টুন”- বললেন শ্রীলেখা। পাল্টা দিলেন দেবাংশু।

বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় দাবী করেছেন যে, শোভনের অনুপস্থিতির সুযোগ নিয়ে তাঁর বাড়িতে পরকীয়ায় মত্ত হয়ে উঠেছেন রত্না চট্টোপাধ্যায়। এমনকি শোভন চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, “আমি যখন ওই বাড়িতে থাকতাম, তখন বাইরের কেউ পা দেওয়ার সাহস করতো না। আর এখন আমার বাড়িতে কারা ঢুকছে ? ওরা কারা ? আমার বেহালার বাড়ির পবিত্রতা এবার নষ্ট করছে রত্না।

আমি চারবছর আগেই ওকে ডিভোর্স দেওয়ার সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।”বৈশাখীর পোস্ট করা ছবিতে রত্নার সাথে ব্যক্তিরা কারা রয়েছেন সেই ব্যাপারে এখনো সুনির্দিষ্ট ভাবে কিছু জানা যায়নি।

Related Articles

Back to top button