নিউজটেক নিউজরাজ্য

৭ বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষণ। অভিযুক্ত পুরোহিতের গলায় প্ল্যাকার্ড ঝুলিয়ে ঘোরানো হল সারা গ্রাম

নিজস্ব প্রতিবেদন: বর্তমানে আমাদের সভ্য সমাজে এমন কিছু অমানবিক ঘটনা ঘটে চলেছে আমাদের সভ্যতার উপরে কালিমা লেপন করে দিয়েছে। কিছু ঘটনা এদিকেই অঙ্গুলি নির্দেশ করে যে আমরা এখনো অন্ধকারে মুখ থুবড়ে পড়ে রয়েছি। বিশেষ করে দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে নারী নির্যাতনের ঘটনা। বেশ কিছু জায়গায় শিশু নির্যাতনের ঘটনাও সামনে আসছে।

ঠিক এ রকমই একটি ঘটনা ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের দাঁতনে। মাত্র ৭ বছরের এক ফুলের মতো শিশু কন্যাকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে এক পুরোহিতের বিরুদ্ধে। এই ঘটনার পরেই পাড়ায় সালিশি সভার মাধ্যমে ওই পুরোহিতকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে।জানা গিয়েছে ওই পুরোহিত তার এক শিষ্যের বাড়িতে শ্রাদ্ধের আচার অনুষ্ঠান পালনের উদ্দেশ্যে গিয়েছিলেন ।

আরও পড়ুন-পেট্রোল-ডিজেলের দাম কমাতে আসরে নামল চিন্তিত রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া

সেখানে গিয়ে ওই শিশুকন্যাকে সে আড়ালে ডেকে নিয়ে যায়, তারপরই ভয় দেখিয়ে ওই ৭ বছর বয়সী শিশুকন্যার উপরে নির্যাতন চালায়। বাড়ি ফিরে ওই শিশু কন্যা কান্নায় ভেঙে পড়ে সমস্ত কিছু বলে দেয় তার মা’কে। তারপর এই জনরোষ গিয়ে পড়ে অভিযুক্ত পুরোহিতের উপরে। তাকে মারধর করা হয় এবং সালিশি সভা বসিয়ে নিদান দেওয়া হয় যে তাকে গোটা গ্রাম ঘোরানো হবে।

আরও পড়ুন-তৃণমূল ভবনে চিলেকোঠায় উদ্ধার লক্ষ্মী পেঁচা। তুলে দেওয়া হল বনদপ্তরের হাতে।

এর পরেই একটা প্ল্যাকার্ড পুরোহিতের গলায় বেঁধে দেওয়া হয় যাতে লিখে দেওয়া হয়, “শিশুকে ধর্ষণ করার অপরাধে আমার এই শাস্তি।”তারপরেই অভিযুক্ত পুরোহিতকে পুলিশ এসে আটক করে এবং তারপর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুরোহিতের এই ঘৃণ্য এবং অমানবিক কাজে গ্রামের প্রতিটি মানুষ যথেষ্ট ক্ষুব্ধ হয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই খবর প্রকাশিত হওয়ার পর অনেকেই ওই পুরোহিতের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

Related Articles

Back to top button