ঘুমিয়ে ইঞ্জেকশন দিয়ে আইসিইউতে ভর্তি তরুণীকে ধর্ষণ। চাঞ্চল্যকর কান্ড উত্তরপ্রদেশে।

ঘুমিয়ে ইঞ্জেকশন দিয়ে আইসিইউতে ভর্তি তরুণীকে ধর্ষণ। চাঞ্চল্যকর কান্ড উত্তরপ্রদেশে।

নিজস্ব প্রতিবেদন: আবার এক মর্মান্তিক কান্ড। শিরোনামে আবার সেই উত্তরপ্রদেশ। উত্তরপ্রদেশের মেরঠ জেলার একটি হাসপাতালে আইসিইউতে ভর্তি এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠলো হাসপাতালের ওয়ার্ড বয়ের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত ওয়ার্ড বয়ের নাম হল কাসিম। সে মেরঠের ঘোষিপুর গ্রামের বাসিন্দা। মজিদনগরের বাসিন্দা ওই তরুণীকে জ্বর আসার পর ভর্তি করা হয়েছিলো হাপুর রোডস্থিত কেয়ার নার্সিংহোমে। সেখানে আইসিইউতে ছিলেন তিনি।

গত ২৬ অথবা ২৭ শে মে এই ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানিয়েছে তরুণী। ওই তরুণী বলেছেন যে, ভোররাতে অভিযুক্ত কাসেম তাঁকে ঘুমের ইনজেকশন দেয় , তারপর সিসিটিভি ৪০ মিনিট ধরে বন্ধ রেখে তাঁকে টানা ধর্ষণ করতে থাকে। অসহায় তরুণী শারীরিক অসুস্থতার দরুন বাধা দিতে পারেননি। অভিযুক্ত কাসেম হুমকি দিয়েছিলো যে কাউকে এই কথা বললে সে বিষ ইনজেকশন দেবে তরুণীকে। গত ২৯ শে মে ওই তরুণীকে হাসপাতাল থেকে ছুটি দেওয়া হয়।

কিন্তু বাড়ি ফিরে পরিবারের সকলকে ঘটনা সম্পর্কে জানায় ওই তরুণী। ওই তরুণীর পরিবার লিসারী গেট থানায় অভিযুক্ত কাসেমের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে। তারপরই পুলিশকে অভিযুক্ত কাসেমকে গ্রেফতার করে।এই ঘটনায় উত্তরপ্রদেশ জুড়ে যথেষ্ট চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। অভিযুক্তের বাড়ির লোকের উপর ওই তরুণীর পরিবারের উপর চাপ সৃষ্টি করার অভিযোগ উঠেছে। উত্তরপ্রদেশের বহু মানুষ অভিযুক্ত ওয়ার্ড বয় কাসিমের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী জানিয়েছেন।