নিউজ

নিজের বাড়িতে চিকেন রান্না করতে করতে গান গেয়ে শোনালেন রানু মন্ডল! দারুন ভাইরাল হল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন:-এবার বাড়িতে ঠিক এমন ভাবে থাকে রানু মন্ডল সেই চিত্র ফুটে উঠল এই ভিডিওর মাধ্যমে যা দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা রত ছিল অনেকে । মানুষ তো প্রতিদিনই চাই যে একসময় সে যেন জনপ্রিয়তা লাভ করতে পারে । কারণ জনপ্রিয় হয়ে উঠলে মুহূর্তের মধ্যে নাম যশ খ্যাতি টাকাপয়সা কোনো কিছুরই অভাব হয়না তার । প্রত্যেকে বর্তমান যুগে জনপ্রিয় হতে চায় ।

যদি কাউকে এখনকার যুগে বাচ্চা ছেলেদের কে জিজ্ঞেস করা হয় যে সে বড় হয়ে কি হতে চায় তাহলে তার কাছ থেকে যে উত্তরটি খুব সাধারণভাবে উঠে আসবে সেটি হলো সেলিব্রিটি । আট থেকে আশি সকলেই কিন্তু জনপ্রিয়তার এ প্রতিযোগিতায় নাম লিখিয়েছে । কিন্তু কেউ কেউ আবার না চাইতেও জনপ্রিয় হয়ে যায় শুধুমাত্র তার লুকিয়ে থাকা প্রতিভার মধ্যে দিয়ে । এই যেমন ধরুন রানাঘাট স্টেশন চত্বরে গান গাওয়া রানু মন্ডল।

তাঁর গাওয়া গানটি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করেন এক পথযাত্রী। তারপরও তাকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি সোজা রানাঘাট স্টেশন থেকে পাড়ি দিয়েছিল মুম্বাই বিলাসবহুল স্টুডিওতে। সেখানে জনপ্রিয় গায়ক হিমেশের সাথে একটি গান রেকর্ড করেন তিনি । যা সরিয়ে তোলে প্রতিনিয়ত তার জনপ্রিয়তাকে এবং কোথাও যেন হঠাৎ করে না চাইতে এতো কিছু পেয়ে যাওয়ার জন্য রানু মন্ডল এর শরীরে জন্ম নেয় তুমুল অহংকার ।

আমরা পাঠ্যপুস্তকে বা বিভিন্ন জায়গায় এমনটা শুনে থাকবো যে অহংকার হল পতনের মূল কারণ । তার বাস্তব চিত্র দেখা গেল রানু মন্ডল এর সাথে । যেহেতু খুব অল্প সময়ের মধ্যে তিনি সাফল্য পেয়েছিলেন তাই স্ট্রাগল করে বা পরিশ্রম করে সাফল্য অর্জন করা মর্ম তিনি বোঝেন নি । তাই তার শরীরে জন্ম নিয়েছিল অহংকার এবং সেই অহংকার পতনের মূল কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল । অনুগামীদের সাথে দুর্ব্যবহার সাথে সাথে ভুলভাল কথাবার্তা বলার জন্য মুহূর্তের মধ্যে জনপ্রিয়তা কমতে শুরু করে । এবং লকডাউন এর সময় তিনি রীতিমতো লাইম লাইটে কেন্দ্রবিন্দু থেকে সরে যেতে শুরু করে।

লকডাউন এর সময় রানু মন্ডল এর অবস্থা খুব শোচনীয় হয়ে পড়েছিল । কিন্তু তখন বিভিন্ন ইউটিউবার তাদের বাড়িতে গিয়ে তাকে সাহায্য করার আশ্বাস দিয়েছিলেন এবং করেও ছিলেন । সম্প্রতি একটি ভিডিও ইউটিউবে প্রকাশিত হয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে লাল রঙের একটি নাইটি পড়ে রানু মন্ডল কে রান্না করতেন এবং সে চিকেন রান্না করছেন ।

এমনকি চিকেন অর্থাৎ মুরগির মাংসের ইংরেজি কি হয় সেটা তিনি কিছুক্ষনের জন্য ভুলে গিয়েছিলেন । তাই ক্যামেরাম্যানকে জিজ্ঞেস করলেন এর ইংরেজি টা কি ? যদিও পরবর্তীতে তিনি নিজেই আবার উচ্চারণ করলেন তার ইংরেজি ।এভাবেই প্রতিনিয়ত দিন কেটে যাচ্ছে রানু মন্ডলের ইতিমধ্যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে নেট মাধ্যমে ।

Related Articles

Back to top button