নিউজপলিটিক্স

পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর প্রধান উপদেষ্টার পদ থেকে ইস্তফা দিলেন প্রশান্ত কিশোর।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাংলায় তৃণমূলের জয় লাভের অন্যতম কাণ্ডারী ছিলেন ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোর। তিনি এবং তাঁর আইপ্যাক টিমের বদান্যতায় বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বদের পর্যুদস্ত করে তৃতীয়বারের জন্য সরকার গঠন করতে সক্ষম হয়েছে তৃণমূল। সেই প্রশান্ত কিশোর এবার পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং এর প্রধান উপদেষ্টার পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন । ইতিমধ্যেই তিনি পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী কে চিঠি দিয়ে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

তিনি চিঠিতে লিখেছেন,”আমি সাময়িক বিরতি নিলাম। ‌ আপনি এই বিষয়টি সম্পর্কে অবগত তাই প্রধান উপদেষ্টার পদ থেকে আমি ইস্তফা দিচ্ছি। ‌ বর্তমানে এই পথ থেকে আমি অব্যাহতি চাইছি। আমাকে এই সুযোগ দেওয়ার জন্য অশেষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।”

আরও পড়ুন-কেন্দ্রীয় মন্ত্রীত্ব যাওয়ার কারণ জানিয়ে দিলীপ ঘোষকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বাবুল সুপ্রিয়

এই বছর গত মার্চেই পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং টুইট করে বলেছিলেন যে, “প্রশান্ত কিশোর প্রধান উপদেষ্টার পদ গ্রহণ করেছেন। তাকে সাথে নিয়ে পাঞ্জাবের মানুষের উন্নতিকল্পে আমরা বিভিন্ন কাজ করব।” কিন্তু মাত্র পাঁচ মাস যেতে না যেতেই কি কারণবশত প্রশান্ত কিশোর ইস্তফা দিলেন সেই বিষয়টি যথেষ্ট ধোঁয়াশায় পর্যবসিত হয়েছে।ইতিমধ্যেই জুলাই মাসে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী এবং নেত্রী প্রিয়াঙ্কা বঢরার সাথে বৈঠক করেছিলেন প্রশান্ত কিশোর।

আরও পড়ুন-রাজ্যে বন্যায় মৃতদের পরিবারকে আর্থিক সাহায্য প্রধানমন্ত্রীর

যার ফলে জল্পনা উঠেছিল যে খুব শীঘ্রই হয়তো কংগ্রেসের ছত্রছায়ায় যেতে চলেছেন প্রশান্ত কিশোর। ‌ কিন্তু সেই বিষয়ে এখনো কোনো বিবৃতি দেননি পিকে। তবে পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর প্রধান উপদেষ্টার পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার কার্যত কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার তত্ত্বটি আরো বেশি করে জড়ানো হয়েছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।এর আগে প্রশান্ত কিশোর আভাস দিয়েছিলেন যে তিনি ভোট কুশলীর কাজ ছেড়ে এবার সরাসরি রাজনীতিতে মনোনিবেশ করতে চান।

এরপর একটি বৈঠকে তাঁকে কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী।

Related Articles

Back to top button