সদ্য মাতৃবিয়োগ হয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। আত্মীয়দের দেওয়া ফল হাসপাতাল এবং অনাথ আশ্রমে বিতরণ করছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

সদ্য মাতৃবিয়োগ হয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। আত্মীয়দের দেওয়া ফল হাসপাতাল এবং অনাথ আশ্রমে বিতরণ করছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

নিজস্ব প্রতিবেদন: কয়েকদিন আগেই মাতৃবিয়োগ হয়েছে তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। পার্থ বাবুকে সান্ত্বনা দিতে তাঁর পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন তৃণমূল নেতা নেত্রীরা এবং তাঁর অগণিত অনুরাগীরা। প্রতিদিন‌ই তাঁর বাড়িতে আসছেন অসংখ্য মানুষজন। আসছেন তার অগণিত আত্মীয়-স্বজন।

সকলেই সাথে করে আনছেন ফুল ফল এবং মিষ্টি। বাড়ি ভরে উঠছে ফল এবং মিষ্টিতে। এত মিষ্টি এবং ফল বাড়িতে না রেখে হাসপাতলে এবং স্থানীয় একটি অনাথ আশ্রমে পাঠিয়ে দিচ্ছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় । পার্থবাবুর এই মানবিক কর্মকাণ্ডে যথেষ্ট আপ্লুত হয়েছেন রাজ্যবাসী।

আরও পড়ুন-আগামী সোমবার থেকে সম্পূর্ণ লকডাউন ব্যারাকপুরে।

পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মা শিবানী চট্টোপাধ্যায় প্রয়াত হওয়ার পরেই তার বাড়িতে আত্মীয় স্বজনের সমাগম হয়ে চলেছে। পার্থ চট্টোপাধ্যায় কে সমবেদনা জানাতে তার আত্মীয় স্বজনরা সাথে করে যে ফল মিষ্টি নিয়ে যাচ্ছেন তা এত ব্যাপক সংখ্যায় বাড়িতে জড়ো হচ্ছে যাতে সেই ফল মিষ্টি খুব শীঘ্রই নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এমনিতেই পার্থ চট্টোপাধ্যায় অল্প আহার করেন বলেই পরিচিত।

আরও পড়ুন-কলকাতা থেকে উঠে যেতে চলেছে কলকাতা স্টক এক্সচেঞ্জ, ডিভিসি, টিবোর্ডের অফিস‌ও সরতে চলেছে। কেন্দ্রকে চিঠি দিলেন রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র।

তাই তিনি এই সমস্ত ফল পাঠিয়ে দিচ্ছেন বেহালার বিদ্যাসাগর হাসপাতাল এবং বাঁশদ্রোণীর একটি অনাথ আশ্রমে।এই সময় করোনার আবহে রোগীদের দরকার পুষ্টিকর খাবার তাই হাসপাতলে এই সমস্ত ফল পাঠিয়ে দিচ্ছেন তৃণমূল মহাসচিব। এছাড়াও অসহায় অনাথ বাচ্চাদের পুষ্টির কথাটি বিবেচনা করে অনাথ আশ্রম এই সমস্ত ফল মিষ্টি পাঠিয়ে দিচ্ছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় যাতে শিশুরা সঠিক পুষ্টি পায়।

পার্থ বাবু বলেছেন , “বাড়িতে একগাদা ফল মিষ্টি জমে যাচ্ছে। সেগুলো নষ্ট না করে যদি কিছু মানুষের মুখে তুলে দিতে পারি তাহলে সেটা সকলের পক্ষে মঙ্গলজনক হবে।”পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের এই মানবিক উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন প্রতিটি মানুষ।