“তৃণমূলকে ভয় না পেয়ে পরিবর্তনের লক্ষ্যে বেরোচ্ছেন মানুষ।”- বললেন দিলীপ ঘোষ।

“তৃণমূলকে ভয় না পেয়ে পরিবর্তনের লক্ষ্যে বেরোচ্ছেন মানুষ।”- বললেন দিলীপ ঘোষ।

নিজস্ব প্রতিবেদন: একে অপরের চোখে চোখ রেখে একুশের বিধানসভা ভোটে যুযুধান হয়ে রয়েছে তৃণমূল এবং বিজেপি। এদিকে বিভিন্ন জনসভা থেকে একে অপরের বিরুদ্ধে তীক্ষ্ণ কটাক্ষের বাণ ছুঁড়ছেন রাজনৈতিক সংগঠনের প্রার্থী তথা নেতারা । নিরন্তর একে অপরের বিরুদ্ধে বিষোদগার করে চলেছেন তারা। একে অপরের সামান্য খুঁত দেখলেই সেটিকে ইস্যু করে রাজনৈতিক ফায়দা তোলার ভরপুর চেষ্টা করছে সংগঠনের প্রার্থী এবং নেতারা।

বিশেষ করে তৃণমূল এবং বিজেপি একে অপরের দিকে কাদা ছোঁড়াছুঁড়ি করার প্রক্রিয়া এখনো জারি রেখেছে। বাংলার মাটিতে বেশ কয়েকবার জনসভা করছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, তেমনই জনসভা করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রাণপণ চেষ্টা করছেন তারা জনসমর্থন নিজের দিকে টানার জন্য।

আরও পড়ুন-আত্মরক্ষার তাগিদে গুলি চালিয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনী।”- ছবি প্রকাশ করে দাবি করলেন শুভেন্দু অধিকারী

এদিকে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন , “এতদিন পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গে বন্দুক গুলি দিয়েই সবকিছু হয়ে এসেছে , সেই অভ্যাস তো তাড়াতাড়ি যাবে না, বিজেপি এসে সমস্ত কিছু পাল্টে দেবে। তাই কলকাতা এবং তার আশেপাশে যে সমস্ত তৃণমূলের গড় রয়েছে , সেই সমস্ত এলাকার মানুষজন‌ও নির্দ্বিধায় ভোট দিতে যাচ্ছেন ।

এবার উনারা কলকাতা এবং তার আশেপাশের এলাকায় শেষ রক্ষা করতে চাইছেন। গুলির আওয়াজ, বোমের আ‌ওয়াজে মানুষ বাড়ির ভিতরে ছিলো, এবার মানুষ বেরিয়ে এসে ভোট দিতে চাইছেন। পরিবর্তনের পক্ষে ভোট হচ্ছে। মানুষ তৃণমূলকে ভয় না পেয়ে পরিবর্তনের জন্য বেরিয়ে এসেছেন।”