নিউজ

প্রতিষেধক কে কেন্দ্র করে ছড়াচ্ছে নানা আতঙ্ক। দেখে নিন কোনটি ঠিক আর কোনটি ভুল

নিজস্ব প্রতিবেদন: আজ থেকেই দেশের রাজ্যগুলিতে ১৮ বছর বয়সীদের ঊর্ধ্বে টিকাকরণের কথা ছিল। কিন্তু ভ্যাকসিন অপ্রতুল হওয়ায় বেশ কিছু রাজ্যে আজকে শুরু হয়নি টিকাকরণ। ‌ সিরাম ইনস্টিটিউট জানিয়েছিল, তাদের ভ্যাকসিন তারা কেন্দ্রকে বিক্রি করবে ১৫০ টাকায় এবং রাজ্যগুলিকে ৪০০ টাকায় বিক্রি করবে। চাপের মুখে তারা রাজ্যগুলিকে ৩০০ টাকায় ভ্যাকসিন‌বিক্রি করবে বলে জানায়।

ভ্যাকসিনের দামের এই তারতম্য নিয়ে গতকাল বিরক্তি প্রকাশ করেছে সুপ্রিম কোর্ট। কেন্দ্রীয় সরকারকে বেশ কয়েকটি প্রশ্নের মুখে পড়তে হয় সুপ্রিম কোর্টের কাছে। আজ ভারতের বুকে এসে পৌঁছেছে রাশিয়ার ভ্যাকসিন স্পুটনিক ভি। আজ রাশিয়া থেকে একটি বিশেষ বিমানে করে এই ভ্যাকসিন অবতরণ করেছে হায়দ্রাবাদ বিমান বন্দরে। উৎপাদনকারী সংস্থা দাবি করেছে এই ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা প্রায় ৯৫%।

আরও পড়ুন-করোনা ওয়ার্ডে টানা ১২ ঘন্টা পড়ে করোনা রোগীর মৃতদেহ

জরুরি ভিত্তিতে এই ভ্যাকসিন ভারতীয় জনগণকে দেওয়া হবে বলে ছাড়পত্র দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। করোনার এই ভ্যাকসিনকে কেন্দ্র করে ব্যাপক বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে সারা দেশ জুড়ে। এই বিভ্রান্তির বিরুদ্ধে লাগাতার প্রচার করছে কেন্দ্রীয় সরকার। স্বাস্থ্য দপ্তর জানিয়েছে,”অনেক ক্ষেত্রেই অনেকে বলছেন যে ভ্যাকসিন নেওয়ার পর মাস্ক ব্যবহার করার কোন প্রয়োজন নেই, কিন্তু এই ধারণা সম্পূর্ণ ভুল, প্রতিষেধক নেওয়ার পরেও মস্ট ব্যবহার করা এবং হাত স্যানিটাইজ করা জরুরি।

কম সময়ে ভ্যাকসিন তৈরি হয়েছে বলে অনেকেই এর উপযোগিতায় উষ্মা প্রকাশ করেছেন , কিন্তু স্বাস্থ্য দপ্তর জানিয়েছে দীর্ঘ গবেষণার পরেই ছাড়পত্র পেয়েছে ভ্যাকসিন, তাই ভ্যাকসিন কে ঘিরে অযথা সন্দেহের কোন কারণ নেই। এছাড়াও ভ্যাকসিন নিলে বন্ধ্যাত্ব আসবে এমন কোন বিষয় দেখা যায়নি ভ্যাকসিন এর ক্ষেত্রে। মেয়েদের ঋতুচক্র চলাকালীন এই ভ্যাকসিন স্বাভাবিকভাবেই নেওয়া যাবে। একবার করোনা আরান্ত হ‌ওয়ার পরেও এই ভ্যাকসিন অবশ্যই নিতে হবে।”

Related Articles

Back to top button