নিউজপলিটিক্সরাজ্য

“আমাদের সম্পর্কটা সমাজের কাছে একটা দৃষ্টান্ত”- মন্তব্য বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের

নিজস্ব প্রতিবেদন: একজন মানুষের জীবনে প্রেমের আগমন ঘটতেই পারে। প্রেম কখনোই বয়স মানে না। কিন্তু প্রেমে মগ্ন হ‌ওয়ার পাশাপাশি প্রতিটি মানুষের কিছু স্বাভাবিক দায়িত্ববোধ রয়েছে কর্তব্য রয়েছে যেগুলো তাকে পালন করতে হয়। অনেক সময় গভীর প্রেমে আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে গিয়ে মানুষ ঠিক বেঠিক বিবেচনা করতে অসমর্থ হয়।

ঠিক এমনই ঘটনা ঘটেছে প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সাথে। বর্তমানে তার দাম্পত্য জীবনে যথেষ্ট চড়াই-উৎরাই দেখা দিয়েছে। তার স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায় এবং ছেলেমেয়ের সঙ্গ ত্যাগ করে শোভন বর্তমানে গোলপার্কের এক বহুতলে থাকেন। তাঁর সাথে ছায়াসঙ্গী হয়ে থাকেন প্রাক্তন অধ্যক্ষা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন-“বাপ দেখেনি ছাগল ছেলে মুরগি দেখেই পাগল।”- সায়নী ঘোষের মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তাঁকে পাল্টা ‘কন্ডোম দিদি’ বলে কটাক্ষ করলেন এক নেটিজেন

সিবিআই গত ১৭ ই মে নারদা মামলায় গ্রেফতার করেছিলো ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কে। গ্রেপ্তার করে তাদেরকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিলো নিজাম প্যালেসে সিবিআই দপ্তরে। তখনই স্বামীর গ্রেপ্তারের খবর শুনে স্থির থাকতে পারেননি রত্না চট্টোপাধ্যায় । সাথে সাথে উকিলকে সাথে নিয়ে তিনি ছুটে গিয়েছিলেন নিজাম প্যালেসে।

রত্না চট্টোপাধ্যায় দাম্পত্যে সমস্ত ওঠাপড়া কে একপাশে সরিয়ে রেখে পাশে দাঁড়িয়েছিলেন শোভনের। এই বিষয়টিকে যথেষ্ট সমর্থন করেছিলেন নেটিজেনরা। সকলেই রত্না চট্টোপাধ্যায়ের স্বামীর প্রতি কর্তব্য দেখে ভূয়সী প্রশংসা করেছেন । কিন্তু শোভন চট্টোপাধ্যায় প্রথম থেকেই তার স্ত্রী এবং ছেলেকে দূরে সরিয়ে রেখেছেন।

আরও পড়ুন-“ধনখড় হল ভয়ঙ্কর”- রাজ্যপাল পদ অবলুপ্ত করার স‌ওয়াল করলেন প্রসূন বন্দোপাধ্যায়

কয়েকদিন আগেই তিনি তার সমস্ত সম্পত্তির পাওয়ার অফ অ্যাটর্নি করেছেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় কে। তাঁর এই কাজ সমাজের বহু মানুষের কাছে অত্যন্ত নিন্দনীয় বলে বিবেচিত হয়েছে। নিজের স্ত্রী ছেলে থাকা সত্ত্বেও তিনি কিভাবে পরকীয়া সম্পর্কের একজনের হাতে তাঁর সম্পত্তির দায়িত্বভার তুলে দিতে পারেন তা বহু মানুষ কিছুতেই সমর্থন করেননি। সোশ্যাল মিডিয়াতে দিনরাত শোভন বৈশাখী কে ঘিরে ব্যঙ্গ-বিদ্রূপ চলছে।

আরও পড়ুন-আগামী ৭ ই জুলাই রাজ্যে পূর্ণাঙ্গ বাজেট পেশ করতে পারেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

কিন্তু এই জুটি সমস্ত কিছু সমালোচনা ব্যঙ্গ-বিদ্রুপের মাঝে নিরুত্তর রয়েছেন একে অপরের সাথে সময় কাটিয়ে যাচ্ছেন। কয়েকদিন আগেই জামাইষষ্ঠীর দিন রাতারাতি নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর পরিচয় উল্লেখ করেছেন ‘বৈশাখী শোভন ব্যানার্জী’।সম্প্রতি রত্না চট্টোপাধ্যায়ের নামে লালবাজারে অভিযোগ দায়ের করেছেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। পাল্টা রত্না চট্টোপাধ্যায় তার স্বামী শোভন চট্টোপাধ্যায়ের নিরাপত্তায় আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন,”ফেসবুক প্রোফাইলের নাম বদল করার পর অনেকেই আমাদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। শোভনের সাথে আমার এই সম্পর্ক আমি কখনোই কারো কাছ থেকে লুকিয়ে রাখিনি। সমাজের ভয়ে কখনো এই সম্পর্ককে অস্বীকার করিনি। আমাদের এই সম্পর্ক সকলের কাছে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।”

Related Articles

Back to top button