“বিয়ে নিয়ে সম্পূর্ণ ভুল তথ্য দিয়েছে নুসরত।”- স্পীকারকে চিঠি দিয়ে বললেন বিজেপি সাংসদ।

“বিয়ে নিয়ে সম্পূর্ণ ভুল তথ্য দিয়েছে নুসরত।”- স্পীকারকে চিঠি দিয়ে বললেন বিজেপি সাংসদ।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাংলার রাজ্য রাজনীতিতে নতুন সংযোজন নুসরতের বৈবাহিক বিষয়। বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ নুসরতের সাথে তাঁর স্বামী নিখিল জৈনের বিবাহ কতটা বৈধ আর অবৈধ এই নিয়ে শুরু হয়েছে তরজা। নুসরতের স্বামী নিখিল জৈন বলেছেন যে, তিনি অনেকদিন হল নুসরতের সাথে থাকেন না, এমনকি তিনি এটাও বলেছেন যে নুসরতের সন্তানের বাবা তিনি নন। এছাড়াও নিখিল বলেছেন যে, ১০ ই সেপ্টেম্বর নুসরত মা হবেন।

কিন্তু নিজের মাতৃত্ব প্রসঙ্গে এখনো কোনো মন্তব্য করেননি নুসরত। তবে তিনি নিখিলের সাথে বিবাহের বিষয়ে মুখ খুলেছেন, নুসরত বলেছেন, “আমার সাথে নিখিলের তুরস্কে বিয়ে হয়েছিলো। তুরস্কের বিবাহ নিয়ম অনুযায়ী আমাদের এই বিয়ে অবৈধ। ভারতীয় বিবাহ আইনানুযায়ী এই বিয়েটা বৈধ নয়।

আরও পড়ুন-“ভারতে শেষ পর্যন্ত থাকবে মোদী-ফন্ট।” – বিজেপি বিরোধী বৈঠককে কটাক্ষ দিলীপ ঘোষের।

এটাকে লিভ-ইন রিলেশনশিপ বলা যেতে পারে। তাই এখানে ডিভোর্সের কোনো প্রসঙ্গ উত্থাপিত হ‌ওয়ার কথা নয়। বহু আগেই আমি বিচ্ছেদ করে দিয়েছি। আইনের চোখে আমাদের বিয়েটা বিয়ে নয়।

এটা লিভ ইন রিলেশনশিপ।” তাঁর এই মন্তব্যের পরেই বাংলার বহু মানুষ তাঁকে যথেষ্ট ট্রোল‌ করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।কিন্তু নুসরতের স্বামী নিখিল জৈন আগেই বিবাহবিচ্ছেদের মামলা দায়ের করেছেন। এই আবহে বসিরহাটের সাংসদ নুসরত জাহানের বিরুদ্ধে বিবাহ নিয়ে লোকসভায় ভুল তথ্য দেওয়ার অভিযোগে বিধানসভার স্পীকারের দ্বারস্থ হয়েছেন উত্তরপ্রদেশের বদায়ুনের বিজেপি সাংসদ সংঘমিত্রা মৌর্য।

আরও পড়ুন-ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের পরামর্শমতো বিরোধী দলগুলোকে নিয়ে আজ বৈঠক ডেকেছেন শরদ পাওয়ার।

তিনি একটি চিঠির সাথে নুসরতের লোকসভা প্রোফাইল জুড়ে দিয়ে অভিযোগ করেছেন,”লোকসভায় যখন শপথ গ্রহণ করেছিলেন তখন নুসরত নিজের নাম উল্লেখ করেছিলেন নুসরত জাহান রুহি জৈন। শাড়ি, শাঁখা সিঁদুর পরে শপথ নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু এখন তিনি যা বলছেন তা আগের ঘটনার সাথে মিল খাচ্ছে না। তিনি লোকসভায় সম্পূর্ণ ভুল তথ্য দিয়েছেন, এর ফলে তাঁর অবিলম্বে শাস্তি হ‌ওয়া উচিৎ।

তিনি যা করেছেন তা আইনবিরুদ্ধ।”