“২৪ ঘন্টার জন্যে না, পুরো নির্বাচন থেকেই তাকে ব্যান করা দরকার।”- মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আক্রমণ শানালেন দিলীপ ঘোষ।

“২৪ ঘন্টার জন্যে না, পুরো নির্বাচন থেকেই তাকে ব্যান করা দরকার।”- মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আক্রমণ শানালেন দিলীপ ঘোষ।

নিজস্ব প্রতিবেদন : একুশের ভোটেই বাংলার নির্বাচন যাতে অবাধ এবং শান্তিপূর্ণ হয় তার জন্য সদা তৎপর রয়েছে নির্বাচন কমিশন। ‌ কিন্তু প্রথম দফার ভোট শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হলেও, দ্বিতীয় তৃতীয় এবং চতুর্থ দফায় শান্তির ছিটেফোঁটা টুকুও দেখেনি বাংলাবাসী। নন্দীগ্রাম সহ বেশ কিছু জায়গা থেকে দফায় দফায় সংঘর্ষ হিংসা- হানাহানির খবর উঠে এসেছে।

বিজেপি এবং তৃণমূল এর মধ্যে কারো হয়েছে বাদানুবাদ এবং কাদা ছোঁড়াছুঁড়ির পর্ব। শীতলকুচি ঘটনার পরে আরো দ্বৈরথ চরমে উঠেছে তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে। বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা মন্তব্য করেছেন যে কেন্দ্রীয় বাহিনীর উচিত ছিল, আটজনকে মেরে দেওয়া। আবার বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন, জায়গায় জায়গায় শীতলকুচি হবে। ‌

আরও পড়ুন-বিয়ের এত বছর পর এবার স্বামী নিসপালকে নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী কোয়েল, অবাক অনুরাগীরা!

এককথায় একুশের নির্বাচন ঘিরে যথেষ্ট অশান্ত পরিবেশ বিরাজ করছে বাংলার মাটিতে। এদিকে নির্বাচনী বিধি ভঙ্গের দায়ে মুখ্যমন্ত্রীর যেকোনো রাজনৈতিক কর্মসূচির উপর ২৪ ঘন্টা নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন, “মুখ্যমন্ত্রী প্রচার বিকৃত করতে চাইছেন, নির্বাচন কমিশন তাকে ২৪ ঘন্টা ব্যান‌ করে দিয়েছে।

কিন্তু আমি চেয়েছিলাম পুরো নির্বাচন প্রক্রিয়া থেকে তাঁকে ব্যান করে দেওয়া হোক। আমি নির্বাচন কমিশনের কাছে লিখিত আবেদন করেছিলাম। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী দেখছি সব কিছুর বিরুদ্ধেই রাস্তায় নেমে আন্দোলন শুরু করেছেন।“গতকাল সোমবার রাত আটটা থেকে আজ মঙ্গলবার রাত আটটা পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রী কোন জনসভা করতে পারবেন না বলে নির্দেশিকা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন কমিশনের এই নির্দেশিকার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে আজ বেলা বারোটা থেকে গান্ধী মূর্তি পাদদেশে ধর্নায় বসতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।