নিউজব্যাংকিং খুঁটিনাটি

লক্ষীর ভান্ডার নিয়ে নতুন নির্দেশিকা জারি হলো, কারা কারা আবেদন করতে পারবেন না, নতুন শর্ত কি!

নিজস্ব প্রতিবেদন:- লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প শুরু হতে চলেছে গোটা রাজ্য জুড়ে কিন্তু তার আগে সাধারণ মানুষের মনে যাবতীয় প্রশ্ন দেখা যাচ্ছে এবং এই সমস্ত প্রশ্ন গুলো তাদেরকে বিভ্রান্তিতে ফেলতে পারে একথা নতুন করে বলার আর কোন অপেক্ষা রাখে না । তবে সেই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর রয়েছে বিস্তারিতভাবে যদি আপনারা প্রতিবেদনটি সম্পূর্ণ ভালো রকমের ফরেন আজকের প্রতিবেদনে আপনাদের মনে চলতে থাকা সমস্ত ধরনের প্রশ্নের উত্তর আমরা একের পর এক জানাবো ।।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথা অনুসারে তপশীল উপজাতিদের মহিলারা মাসে হাজার টাকা করে এবং সাধারণ বা জেনারেল কাস্টে মহিলারা মাসে ৫০০ টাকা করে অনুদান পাবে সরকারের তরফ থেকে । এর ফলে সেই সমস্ত মহিলারা নিজেদের খরচ নিজেরাই চালাতে পারবে । অন্য কারোর অপেক্ষায় তাদেরকে বসে থাকতে হবে না । এতদিন ধরে এই প্রকল্পের অপেক্ষায় বসে ছিল রাজ্যের সমস্ত মহিলারা । এবার সেই কাজ শুরু হচ্ছে অতি শীঘ্রই । ১ লা সেপ্টেম্বর থেকে গ্রাম থেকে শহরে ছড়িয়ে পড়বে এই প্রকল্পের কর্মসূচি।কিন্তু যে প্রশ্নটা থেকেই যাচ্ছে বারবার যে

১)লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পে আবেদনকারীর স্বাস্থ্য সাথী কার্ড কি থাকা বাঞ্ছনীয় ?

২)তার পাশাপাশি কাস্ট সার্টিফিকেট থাকার কি দরকার?

আরও পড়ুন –আপডেট হলো লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের আবেদনের নতুন শর্ত, বাড়ির কতজন মহিলা আবেদন করতে পারবেন!

৩) ব্যাংক একাউন্ট কি জিরো ব্যালান্সের হতে হবে জয়েন্ট একাউন্ট ছাড়া কি হবে না? ইত্যাদি যদি এই সমস্ত প্রশ্ন উত্তর দেয়া হবে এই প্রতিবেদনে ।

১)বিজ্ঞপ্তিতে পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দিয়েছে যে আবেদনকারীর একটি সিঙ্গেল একাউন্ট থাকতে হবে অর্থাৎ জয়েন্ট একাউন্ট ধারী গ্রাহকরা আবেদন করতে পারবে না তবে আপনাদের হাতে এখনো সময় রয়েছে অতি অবশ্যই একটা সিঙ্গেল একাউন্ট করিয়ে নিন ।

২)এর পাশাপাশি যাদের কাছে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড আছে তারা আবেদন করতে পারবে এবং যাদের নেই তারা দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে গিয়ে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর জন্য আবেদন করতে পারবে তাদের কাছ থেকে প্রদত্ত সমাধান চূড়ান্ত বলে ঘোষণা করা হবে ।

আরও পড়ুন –কোন প্রকল্পে আবেদন করতে কি কি ডকুমেন্ট লাগবে, রইল রাজ্য সরকারের প্রচুর প্রকল্প ও তার সুবিধা!

৩) যাদের কাছে কোন রকম কোন কাস্ট সার্টিফিকেট নেই তারা জেনারেল এর জন্য আবেদন করতে পারবে ।

৪) জিরো ব্যালেন্স এর অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে এমন কোনো বাধ্যবাধকতা নেই । ভারতবর্ষের যেকোনো ব্যাংকের আইএফসি কোড অ্যাকাউন্ট থাকা বাধ্যতামূলক তাহলে আপনারা লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন

Related Articles

Back to top button