নিউজপলিটিক্সরাজ্য

পিএসির চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন মুকুল রায়। আইনি পদক্ষেপ নিতে চলেছে বিজেপি

নিজস্ব প্রতিবেদন: মুকুল রায়কে বিধানসভার পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান পদে আসীন করতে চাইছে। অর্থাৎ এখন‌ই বিধায়ক পদ ছাড়ছেন না মুকুল রায়।বিজেপিতে থাকাকালীন মুকুল রায়কেই এই পদে বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বিজেপির শীর্ষ নেতারা। কারণ পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির এই পদ থাকে বিরোধীদের হাতেই।

কিন্তু মুকুল রায়ের অবস্থান নিয়ে ধোঁয়াশার সৃষ্টি হ‌ওয়ায় এই পদে অর্থনীতিবিদ অশোক লাহিড়ীকে বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো বিজেপি। কিন্তু তৃণমূল এখন চাইছে এই চেয়ারম্যান পদটি তাদের দখলেই থাকুক। তাই এবার তারা নাকি মুকুল রায়কে এই পদে বসানোর জন্য ভাবনা চিন্তা শুরু করেছে। এর ফলে আবার তৃণমূল-বিজেপি তরজা সৃষ্টি হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে।

আরও পড়ুন-“আলাপনের মত একজন সৎ অফিসার দেখান। আমরা ওকে পূর্ণ সহযোগীতা করব।”- মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

এই আবহে গত মঙ্গলবার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বরাদ্দ ১০ টি কমিটির চেয়ারম্যানের নামের তালিকা বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় এর কাছে জমা দিয়েছেন। বিজেপি দাবি করেছে যে আগে পিএসি চেয়ারম্যান এর নাম ঘোষণা করা হোক। বিধানসভায় মোট ৪১ টি কমিটি রয়েছে, এর মধ্যে বিরোধী দল বিজেপির জন্য বরাদ্দ হয়েছে ১০ টি।গতকাল বুধবার এই পিএসগ চেয়ারম্যান পদের জন্য মনোনয়ন জমা দিয়েছেন মুকুল রায়।

এরপরেই মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে দলত্যাগ বিরোধী আইন লাগু করার পদক্ষেপ নিয়েছে বিজেপি। বিজেপি জানিয়েছে অশোক লাহিড়ীকে পিএসির চেয়ারম্যান না করা হলে সমস্ত কমিটি তারা বয়কট করবে। মুকুল রায় মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন গতকাল বুধবার। মুকুল রায় কে সমর্থন করেছেন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার বিধায়ক।

আরও পড়ুন-“যত তাড়াতাড়ি সম্ভব উপ নির্বাচন করা হোক। সাতদিন সময় দিলেই যথেষ্ট।”- বললেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিকে বিজেপির পক্ষ থেকে এই সদস্য পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী, অশোক লাহিড়ী, বিবেকানন্দ বাউরি, অম্বিকা রায়, নিখিল রঞ্জন দে এবং বঙ্কিম চন্দ্র ঘোষ। বিজেপি জানিয়েছে দলে আলোচনা চলছে। বিজেপিকে যদি এই চেয়ারম্যান পদ না দেওয়া হয় তাহলে আইনি পদক্ষেপ এর পাশাপাশি বিধানসভার সমস্ত কমিটি বয়কট করবে বিজেপি। মঙ্গলবার রাতে বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় বিরোধী দল বিজেপিকে চিঠি মারফত জানিয়ে দিয়েছেন, ‘পিএসির চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ সম্পর্কে স্পীকারের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে।’

Related Articles

Back to top button