করোনা আবহে হাওড়া ও শিয়ালদহ ডিভিশনে বাতিল হয়ে গেল একাধিক ট্রেন!

করোনা আবহে হাওড়া ও শিয়ালদহ ডিভিশনে বাতিল হয়ে গেল একাধিক ট্রেন!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-ক্রমাগত দেশের প্রতিটি অংশে জাল বিস্তার করে চলেছে করোনাভাইরাস। ভারতে ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ প্রবেশ করার পর থেকেই অবস্থার অবনতি ঘটে গিয়েছে। এতদিন পর্যন্ত ভ্যাকসিন গুলি ভাইরাস প্রতিরোধ করতে সক্ষম হলেও বর্তমানে আর সেই সুযোগ নেই। ভাইরাসের বিদেশী প্রজাতির উপর একেবারেই টিকা কার্যকরী নয় বললেই চলে।

প্রতিটি জায়গায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে চলেছে।বিশেষজ্ঞদের দাবি অনুযায়ী এপ্রিল মাসের শেষদিকে এই দৈনিক আক্রান্ত সংখ্যা এমন এক জায়গায় পৌঁছবে যে তা রোধ করা মুশকিল হবে ভারতবাসীর পক্ষে। প্রসঙ্গত গতকাল দেশে ভাইরাসে দৈনিক আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লক্ষ্য ৩২ হাজার ৭৩০ জন এবং মৃত্যু ঘটেছে ২ হাজার ২৬৫ জনের।

এমতাবস্থায় হাওড়া শিয়ালদহ ডিভিশনে প্রতিদিন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের সংখ্যা বৃদ্ধি ঘটতে থাকায় একাধিক ট্রেন বাতিল করল রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। রেল সূত্রের খবর অনুযায়ী, হাওড়া ডিভিশনে বুধবার ১৬ টি প্যাসেঞ্জার এবং ১৯ জোড়া লোকাল ট্রেন বাতিল করা হয়েছে। শিয়ালদহ স্টেশন এর ক্ষেত্রে এই বাতিল লোকাল ট্রেনের সংখ্যা ৩৩। আপাতত এই ডিভিশনগুলিতে মেল ও এক্সপ্রেস ট্রেন মোটামুটি সময়সূচী মেনে চালানো হচ্ছে।

আরও পড়ুন-রিকশা চালকের মেয়ে হওয়া সত্বেও পৌছলেন মিস ইন্ডিয়ার মঞ্চে; এই মেয়ের গল্প হার মানাবে যেকোনো বলিউডের কাহিনীকেও!

হাওড়া ডিভিশনের বাতিল হওয়া ট্রেন গুলির মধ্যে রয়েছে—৬৩০৫১ আজিমগঞ্জ-রামপুরহাট প্যাসেঞ্জার,৬৩৫৮২ রামপুরহাট- বর্ধমান প্যাসেঞ্জার,৩৫০১২ কাটোয়া- বর্ধমান প্যাসেঞ্জার,৩৭৭৮৫ ব্যান্ডেল- বর্ধমান প্যাসেঞ্জার প্রভৃতি। অপরদিকে শিয়ালদহ ডিভিশন এর আওতায় থাকা বাতিল ট্রেনগুলির মধ্যে রয়েছে—শিয়ালদহ- ব্যারাকপুর সেকশনের ৫ জোড়া ট্রেন, শিয়ালদহ-দত্তপুকুর-হাবরা-বনগাঁ সেকশনের ৬ জোড়া ট্রেন,

শিয়ালদহ- নৈহাটি সেকশনের ৪ জোড়া ট্রেন,শিয়ালদহ- ডানকুনি সেকশনের ১ জোড়া ট্রেন,শিয়ালদহ- দমদম ক্যান্টনমেন্ট সেকশনের ১ জোড়া, নৈহাটি-রানাঘাট সেকশনের ১ জোড়া, হাসনাবাদ সেকশনের ১ জোড়া, শিয়ালদহ- কল্যাণী সেকশনের ১ জোড়া,শিয়ালদহ- বারুইপুর সেকশনের ২ জোড়া,শিয়ালদহ- ক্যানিং ও শিয়ালদহ-সোনারপুর-ডায়মন্ডহারবার সেকশন এর ৪ জোড়া,শিয়ালদহ-বারুইপুর- লক্ষীকান্তপুর সেকশনের ২ জোড়া ও সার্কুলার রেলের ভায়া মাঝেরহাট সেকশনের ১ জোড়া ট্রেন।

শুধুমাত্র ট্রেন বাতিল নয় সমস্ত রকমের করোনাভাইরাস এর বিধি মেনে আপাতত বাদ বাকি ট্রেন গুলি চালানো হবে বলে জানানো হয়েছে।সংক্রমনের পরিস্থিতির ওপর নজর রেখে পরবর্তীকালে বড়োসড়ো সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে বলেও এখন থেকে আভাস পাওয়া যাচ্ছে।যদিও লকডাউন এর সম্ভাবনা সম্পূর্ণরূপে খারিজ করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি লকডাউনকে দেশের জন্য ব্যবহৃত সর্বশেষ হাতিয়ার হিসেবে উল্লেখ করেছেন। মাইক্রো কনটেইনমেন্ট জোন তৈরীর প্রতি নজর দেওয়ার কথা বলেছেন মোদি।এই মুহূর্তে দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি যা রয়েছে তাতে যতটা সম্ভব লকডাউনকে এড়িয়ে চলতে হবে বলেই জানান প্রধানমন্ত্রী।