মহিলাদের নিয়ে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ করলেন মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক

মহিলাদের নিয়ে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ করলেন মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক

নিজস্ব প্রতিবেদন: গতকাল সম্পন্ন হয়েছে ষষ্ঠ দফার ভোটগ্রহণ পর্ব। গতকাল সকাল থেকেই ষষ্ঠ দফার নির্বাচনকে ঘিরে যথেষ্ট অশান্তির সূত্রপাত ঘটেছে। ব্যারাকপুরে তৃণমূল প্রার্থী রাজ চক্রবর্তীকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখিয়েছে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। গলসির মনোহর সুজাপুর গ্রামে তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে যে তারা ভোটারদের ভোট দিতে দিচ্ছেনা। ‌ বিশাল কেন্দ্রীয় বাহিনী ওই এলাকায় গিয়েছে। ‌ বীজপুরে এক বিজেপি কর্মীর বাড়িতে ভাঙচুর চালানোর অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে। ‌

অভিযোগ উঠেছে যে বিজেপি কর্মীর বৃদ্ধা মাকেও বেধড়ক মারধর করেছে তৃণমূল সমর্থকরা। এছাড়াও পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামে তৃণমূলের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ এনেছে বিজেপির কর্মী-সমর্থকেরা। ‌ ওই এলাকায় পুলিশকে ইট ছোঁড়ার অভিযোগ উঠেছে । আমডাঙায় রংমহল বুথের ২০০ মিটার দূরে উদ্ধার করা হয়েছে বেশ কয়েকটি তাজা বোমা। এছাড়াও অশোকনগর এবং মঙ্গলকোটে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু এই অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

আরও পড়ুন-মহারাষ্ট্রের পালঘরে কোভিড হাসপাতালে আগুন লেগে মৃত ১৩ রোগী।

তৃণমূল মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন যে, সংখ্যালঘু মহিলা ভোটারদের ভয় দেখাচ্ছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। কেন্দ্রীয় বাহিনী ভোটারদের তৃণমূলে ভোট দিতে বাধা দিচ্ছে। হাবরা বিধানসভার অন্তর্গত নারায়নপুর স্কুলের বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনীরা মুসলিম মহিলা ভোটারদের বিজেপিকে ভোট দেওয়ার জন্য ভয় দেখাচ্ছেন এমনটাই অভিযোগ করেছেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

ওই বুথে তিনি উপস্থিত হয়ে জ‌ওয়ানদের সঙ্গে বিস্তর বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। ‌ তারপরে তিনি বিক্ষোভ দেখান বেশ কিছুক্ষণ। ‌ এরপরে হাবরার আরেকটি বুথে বিজেপি দখল নিয়েছে শুনে সেখানে ছোটেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। ‌ একটি বাড়িতে ঢুকে কয়েকজন ব্যক্তি কে টেনে বের করে আনেন জ্যোতিপ্রিয়বাবু। ‌ তিনি অভিযোগ করেছেন ওই ব্যক্তিরা হলো বহিরাগত যারা অশান্তি পাকানোর জন্য ওই জায়গায় এসেছে। ‌ প্রায়শই কেন্দ্রীয় বাহিনীর সাথে বচসায় জড়িয়ে পড়তে দেখা যায় জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক কে।