নিউজপলিটিক্সরাজ্য

“পরিযায়ী শ্রমিকরা বাংলায় একটি বৃহৎ সমস্যা”- মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে থেকে নবান্ন থেকে বললেন অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়

নিজস্ব প্রতিবেদন: করোনা আবহে সারা রাজ্যে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।এদিকে মুখ্যমন্ত্রীর সাথে নবান্নে বৈঠক করেছেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। ‌গতকাল দুপুর দুটোয় নবান্নে মুখোমুখি বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়।করোনা মোকাবিলায় মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যের কমিটি তৈরি করেছেন তার শীর্ষে আসীন রয়েছেন অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। ‌

এর আগেও কোভিড সংক্রান্ত বৈঠকে অংশগ্রহণ করেছিলেন অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে এবারের ভার্চুয়াল মাধ্যমে বৈঠক করলেও এবার মুখোমুখি বৈঠক করতে চলেছেন তারা।জানা গিয়েছে বাংলায় করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলা সহ আরো বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে পরিপ্রেক্ষিতে তাঁদের মধ্যে এই বৈঠকে পর্যালোচনা হয়েছে।গতকাল নবান্নে গ্লোবাল অ্যাডভাইজরি কমিটির সাথে বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন-“বন্যা পরিস্থিতির জন্য দায়ী নয় ডিভিসি”- এবার বন্যা পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখলেন শুভেন্দু অধিকারী

এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। উক্ত বৈঠকে অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রীর সাথে বসে অর্থনীতি বিপর্যস্ত পরিস্থিতি প্রসঙ্গে বলেছেন,”এই পরিস্থিতিতে প্রতিটি সরকারের উচিত অসহায় মানুষগুলোকে সাহায্য করা। আমাদের রাজ্যে সবথেকে সমস্যা ঠিক এটাই যে ভিন রাজ্যে কাজের সন্ধানে পাড়ি দিচ্ছেন আমাদের রাজ্যের দক্ষ মানুষজন। এর ফলে দেশের অর্থনীতি পরিযায়ী শ্রমিকদের ওপর অনেকটাই নির্ভর করছে।

আরও পড়ুন-“আমাদের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সেনাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়”- ত্রিপুরায় পৌঁছে মহাজোটের বার্তা দিলেন কুনাল ঘোষ

যার জন্য এই সমস্যা বাংলার মানুষ একা হাতে সামলানো পারবেনা। আস্তে আস্তে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করে দিয়েছে।”এই প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন,”প্রতিটি পরিযায়ী শ্রমিকরা এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে তাদের জন্মভূমিতে ফিরে এসেছেন তাদেরকে আমরা বিনামূল্যে বিনামূল্যে চিকিৎসা পরিষেবা, বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড, রেশন কার্ড প্রদান করেছি। বহু পযিযায়ীরা রাজ্যে ফিরে আসার পর তাদের কাজের‌ ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে। “

এছাড়া আর্থিক প্রসঙ্গে অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেনন যে, “সমগ্র দেশের জিডিপি সাড়ে ১৩% হবে।‌ যদি তৃতীয় ঢেউ না আসে তখন এই জিডিপি প্রায় ৭% তে গিয়ে স্পর্শ করবে।”

Related Articles

Back to top button