মেহুল চোকসি ডমিনিকার জেলে। বাকি অভিযুক্তেরা কোথায় রয়েছেন?

মেহুল চোকসি ডমিনিকার জেলে। বাকি অভিযুক্তেরা কোথায় রয়েছেন?

নিজস্ব প্রতিবেদন: পিএনবি কেলেঙ্কারি মামলায় অন্যতম অভিযুক্ত মেহুল চোকসিকে ভারতে ফেরানোর জন্য প্রবল চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ইডি এবং সিবিআই। গত ২০১৮ থেকেই তাকে দেশে ফেরানোর চেষ্টা করছে তারা। ইতিমধ্যেই ডোমিনিকায় ধরা পড়েছে মেহুল চোকসি। অ্যান্টিগা থেকে সে পালিয়ে গিয়েছিলো ডমিনিকায়। নৌকায় পালিয়েছিলো ডমিনিকা দ্বীপেসেখানেই ধরা পড়ে মেহুল চোকসি।

ইতিমধ্যেই মেহুল চোকসিকে ফেরানোর জন্য ব্যাপক তৎপরতা শুরু করেছে ভারত সরকার। জানা গেছে ইতিমধ্যেই অ্যান্টিগা প্রশাসনকে প্রত্যর্পণের নথিপত্র পাঠিয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। ভারতের একটি ব্যক্তিগত বিমান ইতিমধ্যেই ডোমিনিকার চার্লস বিমানবন্দরে উপস্থিত হয়েছে মেহুল চোকসিকে দেশে ফেরানোর লক্ষ্যে। কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে আটজন সদস্য রয়েছেন এই বিশেষ দলটিতে।

আরও পড়ুন-“রাজ্যে টীকাকরণে দেখা দিচ্ছে বিস্তর গরমিল”- অভিযোগ শুভেন্দুর।

তবে মেহুল চোকসি ছাড়াও পিএনবি কেলেঙ্কারি মামলার অপর অভিযুক্ত নীরব মোদীও পালিয়ে গিয়েছিলেন ইংল্যান্ডে। সেখানেই ধরা পড়েছেন নীরব মোদী। বর্তমানে তাকে রাখা হয়েছে সংশোধনাগারে। ‌ খুব শীঘ্রই ভারতে ফেরানো হবে তাকে।আবার কিংফিশারের প্রতারণার মূল অভিযুক্ত কিংফিশার মালিক বিজয় মালিয়া ২০১৬ সালে পালিয়ে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন ইংল্যান্ডে।

আরও পড়ুন-মেহুল চোকসিকে ছাড়াতে ডমিনিকার বিরোধী নেতাকে নাকি ঘুষ দিয়েছেন মেহুলের ভাই চেতন

ভারত সরকার চেষ্টা করেও এখনো পর্যন্ত তাকে দেশে ফেরাতে পারেনি।তবে জানা গিয়েছে ব্রিটেনের আদালত বিজয় মালিয়ার আবেদন খারিজ করে দিয়েছে। বর্তমানে জামিনে মুক্ত রয়েছে বিজয় মালিয়া। তিনি নাকি ব্রিটেনের কাছে রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন জানিয়েছেন। তবে এখনো পর্যন্ত তাঁকে আশ্রয় দিতে রাজি নয় ব্রিটেন। কিন্তু প্রশাসনিক নানান দোটানার মধ্যে এখনো তাকে দেশে ফেরানো যাচ্ছে না।