“কামারহাটি পুরসভার প্রশাসক করে দিন।”- মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ভিডিও বার্তায় আবেদন মদন মিত্রের।

“কামারহাটি পুরসভার প্রশাসক করে দিন।”- মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ভিডিও বার্তায় আবেদন মদন মিত্রের।

নিজস্ব প্রতিবেদন: একুশের ভোটে রাজ্যের প্রায় চতুর্দিকে জয়জয়কার তৃণমূল কংগ্রেসের। বিজেপিকে কার্যত ধূলিস্মাৎ করে দিয়ে বাংলায় আবার তৃতীয়বারের জন্য সরকার গঠন করেছে তৃণমূল। মুখ্যমন্ত্রী পদে তৃতীয়বার আসীন হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহনমন্ত্রী মদন মিত্র জিতে গিয়েছেন কামারহাটিতে। বর্তমানে তিনি কামারহাটির মানুষের উন্নয়নে কাজ করে চলেছেন।

গত ১৭ ই মে ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সাথে মদন মিত্রকেও গ্রেফতার করেছিলো সিবিআই। তবে বর্তমানে অন্তর্বর্তী জামিনে মুক্ত রয়েছেন মদন মিত্র। তিনি হাসপাতালে অসুস্থ হয়ে ভর্তিও ছিলেন। আবার সুস্থ হয়েই তিনি ফিরেছেন স্বমহিমায়। আবার সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করছেন একের পর এক লাইভ ভিডিও। কখনো বিরোধীদের রঙিন সুরে আক্রমণ করছেন আবার কখনো মুখ্যমন্ত্রীর স্তুতি করছেন।

আরও পড়ুন-“অবসরপ্রাপ্ত আমলাদের পুনর্নিয়োগের বাধ্যতামূলক হবে ভিজিল্যান্সের ছাড়পত্র।”- জারি হল নির্দেশিকা।

এবার মদন মিত্রের আরেকটি লাইভ ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যেখানে তাঁকে দেখা গিয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে আবেদন জানাতে।মদন মিত্র এই ভিডিওতে মুখ্যমন্ত্রীকে বলেছেন, “আমি মন্ত্রীত্ব‌ও চাইনি, আমি এম‌এল‌এ হতেও চাইনি। আপনি যদি সত্যি কথা স্বীকার করেন তাহলে আমি আপনার কাছে বিধানসভার নমিনেশন‌ও চাইনি‌ । আমি ধরেই নিয়েছিলাম যে আপনি আমাকে নমিনেশন দিতেও পারেন আবার নাও দিতে পারেন। । যদি দেন আপনার দয়া।

আরও পড়ুন-মনোজ বাজপেয়ীর ‘ফ্যামিলি ম্যান ২’ তে পিএম‌’এর ভূমিকায় হুবহু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছায়া।

আমি আপনার দয়াতেই জিতেছি। তিনবার জিতেছি। খালি কমিশন। জি প্লাস থ্রি ফোর করবো পঞ্চাশ লাখ, জি প্লাস ফোর ফাইভ করবো পঞ্চাশ লাখ কমিশন। মানুষ আর পারছে না। আপনি একটু নজর দিন। আপনি আমাকে যদি বলেন এম‌এল‌এ পদ থেকে পদত্যাগ করুন আমি এক্ষুনি পদত্যাগ করবো। আমি কামারহাটি পুরসভার প্রশাসক হতে চাইছি। আমি মদন মিত্র, আমি লড়তে রাজী আছি। আমাকে কামারহাটি পুরসভার প্রশাসক করে দিলে আমি তিনমাসের মধ্যে কামারহাটিকে পাল্টে দেবো।”