নিউজপলিটিক্সরাজ্য

দলনেত্রীকে আবেদন জানিয়েছিলেন মদন মিত্র। এবার ভাগ্যের চাকা ঘুরতে চলেছে তাঁর।

নিজস্ব প্রতিবেদন: সর্বদা রঙিন মেজাজে থাকেন কামারহাটির তৃণমূল বিধায়ক তথা রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহনমন্ত্রী মদন মিত্র। কয়েকদিন আগেই তিনি ফেসবুক লাইভে এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে কাতর আবেদন জানিয়েছিলেন যে তাঁকে কমারহাটি পুরসভার পৌর প্রশাসক পদে অভিষিক্ত করা হোক। তিনি এর জন্য বিধায়ক পদ ছাড়ার কথাও বলেছিলেন। তিনি বলেছিলেন যে পৌর প্রশাসক পদের দ্বায়িত্ব পেলে তিনি কামারহাটির সমস্ত কিছুতে আমূল পরিবর্তন এনে দেবেন।

এই লাইভটি মূহুর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে উঠেছিলো। কিন্তু তার পরেই তিনি এই লাইভটি ফেসবুক থেকে ডিলিট করে দিয়েছিলেন।এই লাইভ এর পরদিন তৃণমূলের সাংগঠনিক বৈঠকে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মদন মিত্র কে তার ফেসবুক লাইভ নিয়ে যথেষ্ট ভর্ৎসনা করেছিলেন । মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন যে, “সোশ্যাল মিডিয়ায় এভাবে যখন তখন যেকোন বিষয় নিয়ে বলা যায় না।”

আরও পড়ুন-বিজেপি করার অপরাধে করা হলো গণধর্ষণ। তৃণমূলের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ ধর্ষিত মহিলারা

অবশেষে জানা গিয়েছে মদন মিত্রের ভাগ্যের চাকা ঘুরতে চলেছে খুব শীঘ্রই। মদন মিত্র কে তৃণমূলের বড়ো পদ দিয়ে সম্মানিত করতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অনুমান করা হচ্ছে যে মদন মিত্রকে উত্তর ২৪ পরগণা জেলার তৃণমূল সভাপতি হিসাবে নিযুক্ত করতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও বর্তমানে ওই পদে আসীন রয়েছেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

আরও পড়ুন-“কুণাল ঘোষের কাছে গিয়েছে বলেই কি শুদ্ধ হয়ে গিয়েছে?”- রাজীবকে তোপ দাগলেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

কিন্তু আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের এই সভাপতি পদের মেয়াদ ফুরিয়ে যেতে চলেছে। তাই আগামী সভাপতি হতে পারেন মদন মিত্র।তৃণমূল সম্প্রতি এক ব্যক্তি এক পদ নীতি চালু করেছে। তাই বর্তমানে রাজ্যের মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় বাবুকে সভাপতি পদে রাখা যাবে না।

তাই এই পদ এবার অলংকৃত করতে পারেন মদন মিত্র।

Related Articles

Back to top button