মুকুল রায়ের স্ত্রীকে হাসপাতালে দেখতে গেলেন লকেট। ছিলেন না মুকুল, শুভ্রাংশু।

মুকুল রায়ের স্ত্রীকে হাসপাতালে দেখতে গেলেন লকেট। ছিলেন না মুকুল, শুভ্রাংশু।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিজেপির পরাজয়ের পরেই বাংলার রাজনীতিতে আবার বিজেপির ঘরে ভাঙনের সূক্ষ্ম সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ দাবী করেছেন যে, তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যাওয়া বহু নেতা নেত্রীরা আবার তৃণমূলে ফিরতে চেয়ে তাঁর সাথে যোগাযোগ করছেন। এদিকে মুকুল রায়ের বিজেপিতে অবস্থান নিয়েও যথেষ্ট অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

সেই বিষয়টি আর‌ও উসকে দিয়েছে একটি ঘটনা। গত বুধবার মুকুল রায়ের স্ত্রীকে দেখতে হাসপাতালে গিয়েছিলেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সময়ে হাসপাতালে উপস্থিত ছিলেন না মুকুল রায়। শুভ্রাংশু রায়ের সাথে তখন কথা বলেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। গত বুধবার সন্ধ্যা ৬:২০ নাগাদ বাইপাসের ধারে ওই হাসপাতালে উপস্থিত হয়েছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আইসিইউ তে গিয়ে মুকুল রায়ের স্ত্রী কে দেখেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন-“কে কেন দেখা করতে গিয়েছিলেন জানিনা”- হাসপাতালে মুকুলের স্ত্রীকে দিলীপ ঘোষের দেখতে যাওয়া নিয়ে মন্তব্য মুকুলের।

চিকিৎসকদের কাছ থেকেই তার চিকিৎসা এবং স্বাস্থ্য সংক্রান্ত যাবতীয় বিষয় সম্পর্কে খোঁজ নেন অভিষেক। মুকুল রায়ের পুত্র শুভ্রাংশু রায়ের সাথেও কথা বলেন তিনি। মুকুল রায়ের স্ত্রী কৃষ্ণা রায়কে গত বৃহস্পতিবার হাসপাতালে দেখতে গিয়েছিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এছাড়াও ওইদিনেই সকাল দশটা নাগাদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ফোন করেছিলেন মুকুল রায়কে।এবার মুকুল রায় স্ত্রীকে গতকাল হাসপাতালে দেখতে গিয়েছেন হুগলি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন-রাজ্যে বিধিনিষেধের মধ্যেই আবার নতুন নিয়ম লাগু করলেন মুখ্যমন্ত্রী।

কিন্তু তিনি যাওয়ার আগেই হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যান মুকুল রায় এবং শুভ্রাংশু রায়। তবে লকেট জানিয়েছেন যে মুকুল রায়ের সাথে তিনি ফোনে কথা বলেছেন। মুকুল রায়ের স্ত্রীকে দেখতে অভিষেক যাওয়ার পরেই বিজেপি প্রতিনিধিরা পরপর যাওয়াতে রাজনৈতিক পটভূমিতে যথেষ্ট চর্চার সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে মুকুল পুত্র শুভ্রাংশু প্রধানমন্ত্রীর ফোনকে ততটা গুরুত্ব না দিয়ে অভিষেকের সৌজন্য মূলক সাক্ষাতের অধিক স্তুতি করেছেন যা রাজনৈতিক ক্ষেত্রে জল্পনা বাড়িয়েছে।