বড়োসড়ো নাশকতার ছক বানচাল জম্মুতে। পাকিস্তানি ড্রোন ধ্বংস করে দিল পুলিশ।

বড়োসড়ো নাশকতার ছক বানচাল জম্মুতে। পাকিস্তানি ড্রোন ধ্বংস করে দিল পুলিশ।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বারবার পাকিস্তানের দিক থেকে ভেসে আসছে অশষি সংকেত। বারবার ভারতের সীমানা অতিক্রম করে পাকিস্তান ড্রোন পাঠিয়ে চলেছে।কয়েক সপ্তাহ আগেই রাতে জম্মুর বায়ুসেনার নিয়ন্ত্রণাধীন টেকনিক্যাল এরিয়াতে জোড়া বিস্ফোরণ ঘটেছে। চীন অথবা পাকিস্তানের দিক থেকে আসা শক্তিশালী ড্রোন মারফৎ এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

এই ঘটনায় সকলের মনেই ফিরে এসেছে পুল‌ওয়ামার আতঙ্ক। তবে কেন্দ্রীয় সরকার মনে করছে এই হামলার মূল চক্রী হতে পারে পাকিস্তান। ড্রোনের মাধ্যমে ওইদিন রাত দুটো নাগাদ এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এই বিস্ফোরণের শব্দে বহু দূরবর্তী অঞ্চল কেঁপে উঠেছিলো।

আরও পড়ুন-পাকিস্তানের উপর একদমই ভরসা নেই । কাঁধে বন্দুক নিয়ে কাজে নিমগ্ন চিনা ইঞ্জিনিয়াররা

এই ঘটনায় কেউ হতাহত না হলেও দুইজন আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের প্রধান জানিয়েছেন যে এই ঘটনায় মনে করা হচ্ছে লস্কর-ই-তৈবার হাত রয়েছে। এই ঘটনায় দেশের প্রতিরক্ষা ক্ষেত্র যে ভবিষ্যতে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে তা মেনে নিচ্ছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা।এরপরে বিভিন্ন সময় পাকিস্তানের দিক থেকে ড্রোন ভেসে আসতে দেখা গিয়েছে ভারতীয় আকাশসীমা।

তার মধ্যে বেশকিছু ড্রোন ধ্বংস করে দিয়েছে ভারতীয় সেনা। এবার ঠিক একই ঘটনা ঘটেছে জম্মুর আখনুর সেক্টরে।‌ জানা গিয়েছে গতকাল রাতে আখনুর সেক্টরে পাকিস্তানের দিক থেকে ভেসে আসা ওই ড্রোনটি চোখে পড়ে টহলরত পুলিশের। সাথে সাথে ড্রোনটিকে গুলি করে নামায় পুলিশ।

আরও পড়ুন-লাদাখে ভারতীয় সীমান্তে ঢুকে দলাই লামার জন্মদিন পালনে বাধা দিল চীনা সেনা। আবার উত্তেজনা সীমান্তে।

ড্রোনটি মাটিতে পড়তেই দেখা যায় তার মধ্যে রয়েছে গাদা বিস্ফোরক। অর্থাৎ ভারতের মাটিতে কোনো বড়োসড়ো নাশকতা চালানোর জন্যেই এই ড্রোন পাঠানো হয়েছিলো বলে মনে করা হচ্ছে। আখনুর সেক্টরে কানাচক এরিয়াতে ওই ড্রোনটিকে দেখা মাত্র‌ই গুলি করে জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ।সম্প্রতি একের পরে এক ড্রোন হামলার পরে ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রক অত্যাধুনিক অ্যান্টি ড্রোন সিস্টেম বসাতে চলেছে সীমান্তবর্তী এলাকাগুলিতে।