“কল্যাণীকে যুক্ত করা হবে মেট্রো নেটওয়ার্কের সাথে”- কল্যাণীর জনসভায় বললেন মোদী

“কল্যাণীকে যুক্ত করা হবে মেট্রো নেটওয়ার্কের সাথে”- কল্যাণীর জনসভায় বললেন মোদী

নিজস্ব প্রতিবেদন: রাজ্যের মাটিতে নিজেদের সর্বময় কর্তৃত্ব স্থাপনে সব রকমের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে বিজেপির। একা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সম্মুখসমরে নেমেছেন বিজেপির তাবড় তাবড় নেতারা । বিজেপি প্রভাবশালী কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা বারবার জনসভা করে চলেছেন বাংলার মাটিতে।

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ থেকে শুরু করে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, বিজেপির অধ্যক্ষ জে পি নাড্ডা সহ তাবড় তাবড় নেতারা বাংলার মাটিতে জনসভা করেছেন। যেকোনো মূল্যে নবান্নের সিংহাসন হাসিল করতে বদ্ধপরিকর বিজেপি।

এদিকে বাংলার মাটি আরো দৃঢ় ভাবে ধরে রাখতে চাইছে তৃণমূল‌ও। মুখ্যমন্ত্রী বলেই দিয়েছেন তিনি এক ইঞ্চিও জমি ছাড়বেন না বিজেপিকে। এদিকে বাংলার বুকে বিজেপিকে জেতানোর একাই দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বাংলার ইতিহাসে এই প্রথম, ভারতের প্রধানমন্ত্রী বারবার ছুটে আসছেন বাংলার মাটিতে। কল্যাণীর জনসভা থেকে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন,”কল্যাণী যাতে শিক্ষা এবং স্বাস্থ্যে আরো উন্নত হয় তার জন্যেও পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন –“নিজেদের কর্মীকেই গুলি করে মেরেছে বিজেপি”- শীতলকুচি কান্ডে বললেন মুখ্যমন্ত্রী

আপনাদের AIIMS এর যে চাহিদা ছিলো তা পূরণ করা হয়েছে। দিদির দূর্নীতি বাংলার গরীব আর সাধারণ মানুষের সাথে বড়ো খেলা করেছে। ডবল ইঞ্জিন বিজেপির সরকার এই পরিস্থিতি কে শেষ করবে। আমরা কল্যাণীতে শিল্পের নির্মাণ করবো। কল্যাণীতে ইন্ড্রাস্ট্রিয়াল এলাকা করা হবে। আত্মনির্ভর ভারত গড়ে তোলা হবে।

ভারতের যেখানে যেখানে ডবল ইঞ্জিন সরকার আছে সেখানে আমরা উন্নয়নের জোয়ার এনে দিয়েছি। কল্যাণীতে মেট্রো নেটওয়ার্ক এলে এখানকার লোকের জীবন খুবই সহজ হয়ে উঠবে । খুব শীঘ্রই কল্যাণীতে মেট্রোরেলের লাইন বানানো হবে। কল্যাণীর প্রতিটি কৃষককে আয়ুষ্মান ভারতের আওতাভুক্ত করা হবে। এখন আপনার ভোটেই শক্তি লুকিয়ে রয়েছে। এবার সেই শক্তি প্রয়োগ করবেন।”