নিউজপলিটিক্সরাজ্য

মুকুল রায়ের জায়গায় কি আসতে চলেছেন বিজেপির রাজ্যসভার এই সাংসদ?

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন করেছেন মুকুল রায়। বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি ছিলেন মুকুল রায়। সেই সাথে তিনি কৃষ্ণনগর উত্তর এর বিধায়ক পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। শুভেন্দু অধিকারী সহ বিজেপির সমস্ত নেতৃবৃন্দ মুকুল রায়ের বিধায়ক পদ ত্যাগ করার দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন।

শুভেন্দু অধিকারী হুঁশিয়ারি দিয়েছেন যে তিনি বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় এর কাছে মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে দলত্যাগ বিরোধী আইন বলবৎ করার আবেদন জানাবেন। মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া সম্পাদন করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। ‌ কিন্তু মুকুল রায় এখনই বিধায়কপদ ছেড়ে দিতে নারাজ। তিনি বলেছেন, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ দিলে তবে তিনি বিধায়ক পদ ত্যাগ করবেন ।

আরও পড়ুন-অধীর চৌধুরীর আবেদনে সাড়া দিলেন প্রধানমন্ত্রী। ডিআরডিও মুর্শিদাবাদ এবং কল্যাণীতে বানাতে চলেছে অত্যাধুনিক কোভিড হসপিটাল।

জানা গিয়েছে বিজেপির কেন্দ্রীয় স্তরে একটি সাংগঠনিক পরিবর্তন হতে চলেছে। এই পরিবর্তনে রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাশগুপ্তকে বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি পদে বসানো হতে পারে। এই পদে এতদিন আসীন ছিলেন মুকুল রায়। তাই মুকুল‌ রায়ের ছেড়ে যাওয়া সর্বভারতীয় সহ সভাপতির পদে একজন বাঙালিকেই বসাতে চাইছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন-মুকুলের বিরুদ্ধে লড়াই করতে ময়দানে আসীন হলেন শুভেন্দু। সাজানো হচ্ছে রণকৌশল।

তাই এই পদে স্বপন দাশগুপ্ত কেই মনোনীত করেছেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ।হুগলি তারকেশ্বর আসন থেকে বিজেপির হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে বিধানসভা ভোটের লড়াই করেছিলেন স্বপন দাশগুপ্ত । তবে তিনি হারের মুখ দেখেছেন। রাজ্যসভার সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন তিনি।

পরবর্তীকালে আবার স্বপন দাশগুপ্তকে রাজ্যসভার সাংসদ হিসেবে নির্বাচন করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ ।

Related Articles

Back to top button