বিধানসভার পাবলিক অ্যাকাউন্টস পদে কি বসতে চলেছেন মুকুল রায় ? গাঢ় হল জল্পনা

বিধানসভার পাবলিক অ্যাকাউন্টস পদে কি বসতে চলেছেন মুকুল রায় ? গাঢ় হল জল্পনা

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিজেপি থেকে দীর্ঘ চার বছরের সম্পর্ক শেষ করে তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন করেছেন মুকুল রায়। বিজেপি থেকে দাঁড়িয়ে তিনি কৃষ্ণনগর উত্তর কেন্দ্রে জয়লাভ করেছিলেন। বিধায়ক পদে আসীন হয়েছিলেন মুকুল রায়। কিন্তু ফলাফল ঘোষণা হওয়ার দেড় মাস পরেই তিনি আবার যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে।

আর মুকুলের তৃণমূলে প্রত্যাবর্তনে হঠাৎ করেই রাজনৈতিক সমীকরণ যেন ওলট পালট হয়ে গিয়েছে বিজেপির। বিজেপি থেকে মুকুলের হাত ধরে তৃণমূলে পা বাড়িয়ে রয়েছেন বহু নেতা, কর্মীরা এমনটাই বলছেন মুকুল রায়। এদিকে মুকুল রায় কে আটকাতে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী রাজনৈতিক লড়াইয়ের প্রাঙ্গণে উত্তীর্ণ হয়েছেন। মুকুল রায় কে রোখার জন্য নিজেদের রণকৌশল সাজাচ্ছে বিজেপি।

আরও পড়ুন-২০২৪ এর লোকসভা ভোটে বিজেপির দখলে ক’টা আসন যাবে তা এখনই বলে দিলেন দেবাংশু

মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে শীঘ্রই দলত্যাগ বিরোধী আইন লাগু করার হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। বিধানসভার স্পীকারকে মুকুলের বিধায়কপদ খারিজের দাবীতে চিঠি দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।কিন্তু এর‌ই মধ্যে জল্পনা গাঢ় হচ্ছে যে তৃণমূল এবার মুকুল রায়কে বিধানসভার পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান পদে আসীন করতে চাইছে। অর্থাৎ এখন‌ই বিধায়ক পদ ছাড়ছেন না মুকুল রায়।

আরও পড়ুন-“একমাত্র মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়‌ই প্রধানমন্ত্রীকে আটকানোর ক্ষমতা রাখেন।”- মুখ্যমন্ত্রীর স্তুতি অধীর চৌধুরীর।

বিজেপিতে থাকাকালীন মুকুল রায়কেই এই পদে বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বিজেপির শীর্ষ নেতারা। কারণ পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির এই পদ থাকে বিরোধীদের হাতেই। কিন্তু মুকুল রায়ের অবস্থান নিয়ে ধোঁয়াশার সৃষ্টি হ‌ওয়ায় এই পদে অর্থনীতিবিদ অশোক লাহিড়ী কে বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো বিজেপি। কিন্তু তৃণমূল এখন চাইছে এই চেয়ারম্যান পদটি তাদের দখলেই থাকুক।

তাই এবার তারা নাকি মুকুল রায়কে এই পদে বসানোর জন্য ভাবনা চিন্তা শুরু করেছে। এর ফলে আবার তৃণমূল-বিজেপি তরজা সৃষ্টি হতে চলেছে রাজ্য রাজনীতিতে।