“এক বছরে ভ্যাকসিন বানিয়ে আত্মনির্ভরতার পরিচয় দিয়েছে ভারত।”- বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

“এক বছরে ভ্যাকসিন বানিয়ে আত্মনির্ভরতার পরিচয় দিয়েছে ভারত।”- বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

নিজস্ব প্রতিবেদন: সারা দেশ জুড়ে ভয়াবহ সন্ত্রাস ছড়াচ্ছে করোনাভাইরাস।বহু মানুষের ইতিমধ্যে প্রাণ চলে গিয়েছে। এখনো পর্যন্ত সারা ভারতের বুকে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ২ কোটি ৮৫ লক্ষ ৭৪ হাজার ৩৫০ জন। মৃত্যু হয়েছে ৩ লক্ষ ৪০ হাজার ৭১৯ জনের।

সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ কোটি ৬৫ লক্ষ ৯৭ হাজার ৬৫৫ জন।এখনো পর্যন্ত দেশের অর্ধেক মানুষকেও ভ্যাকসিন দেওয়া সম্ভব হয়নি। এই পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী সিএসআইআর সোসাইটির ভার্চুয়াল বৈঠকে মন্তব্য করেছেন, “আমাদের বিজ্ঞানীরা মেড ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পে এক বছরে ভ্যাকসিন বানিয়েছেন। সারা বিশ্বজুড়ে করোনার সন্ত্রাস চলছে । সমগ্র বিশ্বের কাছে এই ভাইরাসের সাথে যুদ্ধ করা একটা বিরাট চ্যালেঞ্জ হিসেবে পরিগণিত হচ্ছে।

আরও পড়ুন-করোনা চিকিৎসায় রোগীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায়। যোগী আদিত্যনাথের হস্তক্ষেপে রোগীদের থেকে নেওয়া অতিরিক্ত টাকা ফেরালো হাসপাতাল।

কিন্তু সর্বদা এই মানব সমাজের বিপদে রক্ষা করতে এগিয়ে এসেছে বিজ্ঞান।”এই বৈঠকের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, “বিগত দিনগুলিতে বিশ্বের উন্নত দেশগুলিতে যখন কিছু মানব কল্যাণ মূলক আবিষ্কার হতো তার নাগাল পাওয়ার জন্য ভারতকে কয়েক বছর অপেক্ষায় থাকতে হত। কিন্তু বর্তমানে উন্নত দেশগুলির মত ভারতের বিজ্ঞানীরাও মেড ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পে বিভিন্ন চমৎকার দেখিয়ে চলেছেন।“প্রধানমন্ত্রী এটাও বলেছেন যে, “ভারতবাসী আমাদের বিজ্ঞানীদের কাছ থেকে ব্যাপক প্রত্যাশা করে রয়েছেন।

আরও পড়ুন-“প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ নিয়ন্ত্রণে এসেছে।”- প্রধানমন্ত্রীকে আগাম সার্টিফিকেট দিলেন অমিত শাহ।

আমাদের প্রতিভাধর বিজ্ঞানীদের কাছে রয়েছে দেশের এই সমস্যা মোকাবিলা করার মতো প্রযুক্তি। ভারতের এই সম্মিলিত বিকাশ এবং স্বচ্ছতা শক্তি সম্পর্কিত বিষয় পথ প্রদর্শকের ভূমিকা পালন করছে। আজ প্রযুক্তিগত বিষয়ে অন্য দেশের উন্নয়নে ভারত এগিয়ে যাচ্ছে। বায়োটেকনোলজি সহ সমস্ত প্রযুক্তি যথা মহাকাশ প্রযুক্তি, মেডিসিন, কৃষি, সমস্ত ক্ষেত্রেই আজ ভারত আত্মনির্ভর হয়ে উঠেছে।“”এক বছরে ভ্যাকসিন বানিয়ে আত্মনির্ভরতার পরিচয় দিয়েছে ভারত।”- বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।