নিউজ

“করোনার এই আবহে স্থানীয় সমস্যার দ্রুত সমাধান করতে হবে।”- মন্ত্রিসভার বৈঠকে নির্দেশ দিলেন প্রধানমন্ত্রী।

নিজস্ব প্রতিবেদন: সারা ভারতে এক বীভৎস পরিবেশের সৃষ্টি করেছে করোনা ভাইরাস। এই ভাইরাসের প্রকোপে প্রাণ যাচ্ছে একের পর এক মানুষের । এখনো পর্যন্ত সারা ভারতের বুকে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৯১ লক্ষ ৫৭ হাজার ৯৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ২ লক্ষ ১১ হাজার ৮৩৫ জনের। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ কোটি ৫৬ লক্ষ ৭৩ হাজার ৩ জন। পশ্চিমবঙ্গ সহ মহারাষ্ট্র, দিল্লি, হরিয়াণার অবস্থাও যথেষ্ট দুর্বিষহ ।

দিকে দিকে দেখা দিচ্ছে বেডের অভাব, অক্সিজেনের অপ্রতুলতা। জায়গায় জায়গায় চরম অরাজকতা চোখে পড়ছে। আবার অনেক ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে করোনায় মৃতদের নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রশাসনের কোন ব্যক্তিকেই পাওয়া যাচ্ছে না। ঘন্টার পর ঘন্টা পড়ে রয়েছে করোনা রোগীদের মৃতদেহ। জায়গায় জায়গায় দেখা গিয়েছে করোনায় মৃত রোগীদের লাশ পোড়ানোর জন্য জায়গার অভাব দেখা দিয়েছে। রাজ্যের অক্সিজেনের অপ্রতুলতা কে কেন্দ্র করে দেশের মুখ্যমন্ত্রী, অক্সিজেন সরবরাহকারী এবং তিন বাহিনীর প্রধানসহ অন্যান্য ব্যক্তিদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আরও পড়ুন-আগামী ৩ রা মে থেকে কি লকডাউন করতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী? সঠিক খবর কি ?

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন ৮,৬৯৩ মেট্রিক টন অক্সিজেন ২৩ টি রাজ্যের জন্য ধার্য করা হয়েছে।গতকাল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক সম্পন্ন করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এই বৈঠকে তিনি নির্দেশ দিয়েছেন যে এই ভয়াবহ আবহে ভারতের প্রতিটি দপ্তরকে একসাথে কাজ করতে হবে এবং স্থানীয় সমস্যাগুলির দ্রুত সমাধান করতে হবে। কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক বিবৃতি দিয়ে বলেছে যে,”সারা ভারতে করোনার এই দ্বিতীয় পর্যায়ের ভয়াবহ পরিস্থিতিতে আলোচনা করেছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন যে প্রতিটি সরকারি দপ্তর কে একসাথে কাজ করে এই পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হবে। এছাড়াও তিনি বলেছেন যে স্থানীয় মানুষের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ করতে হবে মন্ত্রীদের। জনসাধারণের সমস্ত মতামত নিতে হবে এবং স্থানীয় মানুষদের সঙ্গে বারবার কথাবার্তা বলতে হবে।”এরপর প্রধানমন্ত্রী টুইট করে বলেছেন যে, “মন্ত্রিসভার সকল সদস্যের সাথে করোনা পরিস্থিতির আলোচনায় বৈঠক করেছি ।‌ রাজ্যগুলির সাথে সর্বদা যোগাযোগ রাখা, স্বাস্থ্য পরিকাঠামো বাড়িয়ে তোলা এবং অক্সিজেনের যোগান নিয়ে আলোচনা সম্পন্ন হয়েছে।”

Related Articles

Back to top button