“লম্বা দাড়ি গোঁফ রাখলেই প্রধানমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হবেন না।”- জনসভা থেকে নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ দেবলীনা কুমারের

“লম্বা দাড়ি গোঁফ রাখলেই প্রধানমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হবেন না।”- জনসভা থেকে নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ দেবলীনা কুমারের

নিজস্ব প্রতিবেদন: একে অপরের চোখে চোখ রেখে একুশের বিধানসভা ভোটে যুযুধান হয়ে রয়েছে তৃণমূল এবং বিজেপি। আজ রাজ্যজুড়ে চতুর্থ দফার ভোট গ্রহণ পর্ব চলছে। এদিকে বিভিন্ন জনসভা থেকে একে অপরের বিরুদ্ধে তীক্ষ্ণ কটাক্ষের বাণ ছুঁড়ছেন রাজনৈতিক সংগঠনের প্রার্থী তথা নেতারা ।

নিরন্তর একে অপরের বিরুদ্ধে বিষোদগার করে চলেছেন তারা। একে অপরের সামান্য খুঁত দেখলেই সেটিকে ইস্যু করে রাজনৈতিক ফায়দা তোলার ভরপুর চেষ্টা করছে সংগঠনের প্রার্থী এবং নেতারা। বাংলার মাটিতে বেশ কয়েকবার জনসভা করছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, তেমনই জনসভা করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রাণপণ চেষ্টা করছেন তারা জনসমর্থন নিজের দিকে টানার জন্য।এদিকে দেবলীনা কুমার একহাত নিয়েছেন নরেন্দ্র মোদীকে।

আরও পড়ুন-“নির্বিঘ্নে ভোট সম্পন্ন হ‌ওয়ার জন্যেই বাহিনীকে ঘেরাও করার কথা বলেছিলাম নির্বাচন কমিশনের নোটিসের জবাব দিলেন মমতা

কয়েকদিন আগেই তিনি দিলীপ ঘোষকে একহাত নিয়েছিলেন। এবার প্রধানমন্ত্রীকে নিশানা করলেন দেবলীনা।বাবা দেবাশিস কুমারের সমর্থনে বজবজের জনসভায় দেবলীনা বলেছেন, “প্রধানমন্ত্রী এখন বড় দাড়ি রেখে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সাজতে চাইছেন। কিন্তু বাঙালি এত বোকা নয় যে তাকে রবীন্দ্রনাথের আসনে বসিয়ে দেবে।

বাঙালির দুই জন কৃতী পুরুষ রয়েছেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এবং স্বামী বিবেকানন্দ। এখন প্রধানমন্ত্রী আবার গেরুয়া পোশাক পরে স্বামী বিবেকানন্দ সাজতে চাইছেন। কিন্তু বাঙালিকে এখনো তিনি চেনেন না। প্রধানমন্ত্রী বারবার বলছেন যে উনি সোনার বাংলা তৈরি করবেন, কিন্তু কেন্দ্রে ৭ বছর প্রধানমন্ত্রী পদে আসীন থেকেও তিনি তামার ভারত গড়তে পারেননি, তাহলে সোনার বাংলা তিনি কিভাবে তৈরি করবেন?”