নিউজপলিটিক্স

‘যদি এই সমঝোতা আরও এক সপ্তাহ আগে হত,তাহলে দ্বিগুণ মানুষের জমায়েত করতাম’;দাবি আব্বাসের

নিজস্ব প্রতিবেদন: বহু প্রতীক্ষিত জোটের ব্রিগেড সমাবেশ অনুষ্ঠিত করা হলো আজ। সকাল থেকেই ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে ছিল জোরকদমের প্রস্তুতি।বিমান বসুর দাবি অনুযায়ী ভিড় না হলেও প্রায় যথেষ্টই জনসমাগম লক্ষ্য করা গিয়েছিল এই সমাবেশে।

Advertisement

রাজ্যের বিভিন্ন অংশ থেকে মানুষ হাজির ছিলেন এই সভায়।বলা যেতে পারে বাম- কংগ্রেস জোট এবং আব্বাস সিদ্দিকীর দলের একত্রে একটি বড় জনসমাবেশ এটি।উল্লেখ্য এখনো পর্যন্ত জোটে সংযুক্তিকরণ না ঘটলেও এদিন ব্রিগেড সমাবেশে হাজির হয়েছিলেন ফুরফুরা শরীফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী।

Advertisement

আরও পড়ুন – ‘এক দশক ধরে দিদি-মোদীর খেলা চলছে।ওদের মাঠ থেকে নকআউট করতে হবে’, একযোগে তৃণমূল-বিজেপিকে আক্রমণ সেলিমের।

সভামঞ্চের বক্তৃতা রাখতে গিয়ে এদিন আব্বাস সিদ্দিকীর গলায় শোনা যায় বিরোধীদের উদ্দেশ্য করে একাধিক সুর। তার নিশানায় প্রধানত মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল তৃণমূল কংগ্রেসই ছিল বেশি।পাশাপাশি এদিন বাম নেতাদের নিয়ে অনেক কথা বললেও কংগ্রেসী নেতাদের নিয়ে অনেকটাই নিস্পৃহ ছিলেন তিনি। এদিন শাসক দলের উগ্র সমালোচনা করে আব্বাস বলেন,”বামেরা আমাদের দাবি অনুযায়ী আসন ছেড়েছেন।

Advertisement

আগামী দিন বিজেপি ও বিজেপিরই টিম মমতাকে উৎখাত করব। আগামী নির্বাচনে মমতাকে শূন্য করে ছাড়ব। যেখানেই বামেরা প্রার্থী দেবে, সেখানেই রক্ত দিয়ে জেতাব। যদি এই সমঝোতা আরও এক সপ্তাহ আগে হত, তাহলে দ্বিগুণ মানুষের জমায়েত করতাম। কারণ বাংলার মানুষ মমতার সরকারের উপর ক্ষিপ্ত”।

Advertisement

Related Articles

Back to top button