নিউজটেক নিউজরাজ্য

“কোন সাংসদ অথবা বিধায়কের বিরুদ্ধে যদি ফৌজদারি অভিযোগ থাকে, তাহলে রাজ্য সরকার চাইলেই সেটা প্রত্যাহার করতে পারবে না”- নির্দেশ দিল সর্বোচ্চ আদালত

নিজস্ব প্রতিবেদন: এক যুগান্তকারী নির্দেশ দিয়েছে সর্বোচ্চ আদালত। কোন বর্তমান বা প্রাক্তন সাংসদ অথবা বিদআতের বিরুদ্ধে যদি ফৌজদারি অভিযোগ থাকে তাহলে রাজ্য সরকার চাইলেই সেটা সাথে সাথে প্রত্যাহার করতে পারবে না। এমনটাই নির্দেশ দিয়েছে দেশের সর্বোচ্চ আদালত।

সংশ্লিষ্ট রাজ্যের হাইকোর্টের নির্দেশ ব্যতীত এই কাজ কখনোই হতে পারবেনা রাজ্য সরকার গুলি। আইনজীবী তথা বিজেপি নেতা অশ্বিনী কুমার উপাধ্যায় সুপ্রিমকোর্টে এই সংক্রান্ত একটি মামলা দায়ের করেছিলেন। তিনি আবেদন জানিয়েছিলেন যে ফৌজদারি মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত সাংসদ এবং বিধায়করা যেন ভোটে লড়াই না করতে পারে এই সংক্রান্ত একটি নির্দেশিকা দিক সর্বোচ্চ আদালত।

আরও পড়ুন-প্রকাশিত হল মিড-ডে-মিল প্রোগ্রামের জন্য নদীয়া এবং মুর্শিদাবাদ জেলায় কর্মখালির বিজ্ঞপ্তি

ওই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে নির্দেশ‌ দিয়েছে সর্বোচ্চ বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ। এখনো পর্যন্ত কতজন বিধায়ক অথবা সাংসদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা রয়েছে সেই সংক্রান্ত স্টেটাস রিপোর্ট জমা দেয়নি সিবিআই। যার দরুণ সিবিআইকে যথেষ্ট ভর্ৎসনা করেছে সুপ্রিম কোর্ট।

আরও পড়ুন-কলকাতার পুলিশ কমিশনারকে আউটস্ট্যান্ডিং পুরস্কার দিতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

এদিকে মদন মিত্র এই পরিপ্রেক্ষিতে বলেছেন, “সুপ্রিমকোর্টে জানাতে পারলে আমি খুশী হবো যে দু বছর আমি জেল কাস্টডিতে ছিলাম। কিন্তু আমি এখনো আমার অপরাধ কি সেটাই জানতে পারিনি। এই রায় সুপ্রিম কোর্ট যখন দিয়েছে তখন বিজেপির নেতারা তাদের অপরাধের মামলার কাগজপত্র সাফ করে দিয়েছে।”

Related Articles

Back to top button