“হাত জোর করে বলছি যদি আমরা কোনো ভুল করে থাকি, ক্ষমা করে দিন, মমতা ব্যানার্জীকে 21 সালে আবার মুখ্যমন্ত্রী করুন “- অনুব্রত মন্ডল

বর্তমানে বাংলায় তথা দেশের মধ্যে সন্ত্রাসের ঘোর রাজত্ব চালাচ্ছে করোনা। প্রতিদিনই মৃ-ত্যু হচ্ছে অনেক মানুষের। মৃ-ত্যু-ভয়কে বি-ভী-ষি-কা-ময় সঙ্গী করে নিরন্তর জীবনের সাথে ল-ড়া-ই করে চলেছে মানুষজন। সকলেই স্বপ্নয়য় চোখে চেয়ে রয়েছে সেই স্বাভাবিক দিনগুলি ফেরার অপেক্ষায়। এইসময় দেশের মানুষের উচিৎ সকলের সাথে সকলের ঐক্যবদ্ধভাবে মিলেমিশে এই কঠিন পরিস্থিতির বিরুদ্ধে ল-ড়া-ই করা।

আরও পড়ুন- আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত স্বজনপোষণের টাকার সমস্তটাই ফেরত দিলো শাসকদল, স্পষ্ট হলো দুর্নীতি!

সেইসাথে রাজনৈতিক নেতাদের‌ও উচিৎ এই সঙ্কটময় পরিস্থিতির মধ্যে সকলের কাজের মধ্যে সমন্বয় সাধন করা। কিন্তু তা আর হচ্ছে কোথায় ? এই আশঙ্কার ঘনঘটার মধ্যেও অব্যাহত রাজনৈতিক দলগুলির একে অপরকে কাদা ছোঁ-ড়া-ছুঁড়ির নোং-রা খেলা। এখনও আমফানের ক্ষতিপূরণ, রেশন দূ-র্নী-তি থেকে শুরু করে ক-রো-নার আবহে রাজ্যের মানুষের সুরক্ষার ব্যবস্থা সবকিছু নিয়েই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা।

আরও পড়ুন- ধ’র্ষ’ককে জেল থেকে বাঁচাতে 33 লক্ষ টাকার ঘু’ষ, গ্রে’ফতারির মুখে মহিলা পুলিশ অফিসার শ্বেতা জাদেজা!

এবার এই পরিস্থিতিতে বীরভূমের ইলামবাজারে তৃণমূলের এক কর্মীসম্মেলনে সাধারণ মানুষের কাছে আবেদন জানালেন বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। তিনি বরাবরই বীরভূমের দা-পু-টে নেতা এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্নেহধন্য বলে গণ্য হয়ে থাকেন। বি-ত-র্ক‌ও তাকে অনুসরণ করে প্রতিনিয়ত। বারবার তিনি তাঁর উগ্র ভাষণের জন্য প্রচারের আলোকবৃত্তে চলে আসেন। এ হেন সেই অনুব্রত মণ্ডলকে দেখা গেলো অন্য ভূমিকায়।

আরও পড়ুন- চীনা প্রতিষ্ঠান স্পন্সর, পুরস্কার গ্রহণ করলেন না টলিউড অভিনেতা জিৎ

তিনি কর্মীসভা থেকে হাতজোড় করে বললেন যে, “যদি কোনো পঞ্চায়েত প্রধান চোখ রাঙায়, যদি কোনো রাজনৈতিক নেতা চোখ রাঙায় তাহলে ক্ষ-মা করে দিন, আমি আপনাদের কাছে তাদের পক্ষ থেকে ক্ষমা চাইছি। আপনারা আসন্ন ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে আবার বাংলার জনদরদী মুখ্যমন্ত্রী মাননীয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে ভোট দিন। আপনারা আমাদের এই অগ্রগতির পথে শরিক হয়ে একটা উন্নত বাংলা গড়ার প্রচেষ্টাকে সফল করুন।”অনুব্রত মন্ডলের এই বক্তব্য বিধানসভা ভোটে বীরভূমের তৃণমূলের অনুকূল পরিস্থিতিকে আরো ত্বরান্বিত করতে পারে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

এখানে আপনার মতামত জানান