নিউজপলিটিক্সরাজ্য

বলেছিলাম ভোটে হারিয়ে দেবো। তিন‌বছর ঘুমোতেই দেবো না। এখন ওর হাল দেখে নিন।”- রাজীবকে কটাক্ষ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের

নিজস্ব প্রতিবেদন: তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন করেছেন মুকুল রায়। এছাড়াও পা বাড়িয়ে রয়েছেন প্রবীর ঘোষাল, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়‌ও। কিন্তু মুকুল রায়কে দলে ফিরিয়ে নিলেও রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় কে তৃণমূলে ফিরিয়ে নিতে নারাজ তৃণমূলের একাংশ নেতা এবং সমর্থক রা। অনেকেই রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় এর বিরুদ্ধে বিস্তর ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন ।

যে ডোমজুড়ের মাটিতে তৃণমূল থেকে দাঁড়িয়ে জিতেছিলেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় সেই ডোমজুড়ের মাটিতে বিজেপি থেকে দাঁড়িয়ে ভয়াবহভাবে পরাজিত হয়েছেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। ‌ ডোমজুড়ের মাটিতে তার বিরুদ্ধে পোস্টার পড়েছে। এদিকে গতকাল রবিবার ডোমজুড় বিধানসভার অন্তর্গত রাজচন্দ্রপুর সভা থেকে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করেছেন তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।ওই সভা থেকে কল্যাণ বাবু বলেছেন, “উনি এখন ধর্মনিরপেক্ষতার বিষয়ে কথা বলছেন।

আরও পড়ুন-“আবেগে আঘাত আসবে না।”- রাজীবের প্রত্যাবর্তন প্রসঙ্গে বললেন কুণাল ঘোষ।

একুশের ভোটের আগেই বাঁকড়ার মাটিতে দাঁড়িয়ে উনি সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর উস্কানি দিয়েছিলেন , কিন্তু নির্বাচনী পর্যবেক্ষক তারঃ সে পরিকল্পনা বানচাল করে দিয়েছিলেন। আর এখন উনি ধর্মনিরপেক্ষতার বুলি আওড়াচ্ছেন ।”এছাড়াও কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন যে, “ভোটের আগেই বলেছিলাম যে উনাকে ৩০ হাজার ভোটে হারিয়ে দেবো। এমন হারাবো যে আগামী তিন বছর উনি ঘুমোতে পারবেন না।

আরও পড়ুন-সর্বভারতীয় স্তরে কাজ করার আগে বর্ষীয়ান নেতাদের সাথে সাক্ষাৎ করলেন অভিষেক।

কিন্তু ভোটের ফল বের হওয়ার একমাসের মধ্যেই উনার কি দশা হয়েছে দেখুন। চারদিকে চরকির মতো ঘুরছেন‌ । শান্তিতে থাকতে পারছেন না।”

Related Articles

Back to top button