নিউজবিনোদন

“মাতৃত্বের পরে আরো বেশী আবেগপ্রবণ হয়েছি।”- শুটিং ফ্লোরে গিয়ে অনুভূতি শুভশ্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদন: টলিউডের অন্যতম সেলিব্রিটি দম্পতি রাজ চক্রবর্তী এবং শুভশ্রী গাঙ্গুলী। তাঁদের কোল আলো করে এসেছে তাঁদের পুত্র ইউভান যে জন্মের পরেই রীতিমতো স্টার কিড রূপে গণ্য হচ্ছে। অনেকেই তার সাথে স‌ঈফ-করিনার পুত্র তৈমুরের তুলনা করতে শুরু করে দিয়েছে। শুভশ্রী তাঁর একমাত্র আদরের পুত্রকে নিয়ে আর পাঁচটা মায়ের মতোই নানান স্বপ্নের জাল বুনছেন।

ইউভানের বয়স যখন সাত মাস তখন করোনার গ্রাসে পড়েছিলেন শুভশ্রী, তখন তাঁকে পুত্রের থেকে বেশ কিছুদিন দূরে থাকতে হয়েছিলো। শুভশ্রী জানিয়েছেন যে বর্তমানে তিনি মাতৃত্বের পর আর‌ও বেশী আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছেন। শুটিং শুরু করে দিয়েছেন তিনি। তাঁর মনের নানান অনুভূতি তিনি ব্যক্ত করেছেন।

আরও পড়ুন-গোয়ায় বেড়াতে গেলেন নীল-তৃণা। তাঁদের রোমান্টিক মূহুর্ত ধরা পড়লো নেটমাধ্যমে।

তিনি বলেছেন,”মাতৃত্বের পর শুটিং ফ্লোরে ফিরে খুবই এনজয় করছি। ‌ কাজে ফিরতে পেরে আমি খুবই খুশি হয়েছি। কাজের সময় টা মন দিয়ে কাজ করলেও বারবার ওর (ইউভান) কথা মনে পড়ছে । তাই কাজের ফাঁকে একটু সময় পেলেই ভিডিও কলে ওর সাথে কথা বলে নিচ্ছি, ওর বেড়ে ওঠার টুকরো টুকরো মুহূর্তগুলি যেন মিস না করে যাই , এটাই মনে প্রাণে চাই।

তাই আমি সুযোগ পেলেই ওকে ভিডিও কল করে নিই। আমি রাজের স্ত্রী হিসাবে খুব‌ই গর্বিত। ও এমনিতেই খুবই সৎ, তাই জানি ও রাজনীতিতে নিজের ১০০% দিয়ে মানুষের জন্য কাজ করবে। ও যে ফিল্ডে যাবে সেখানেই ও সকলের মন জয় করে নেবে।

আরও পড়ুন-চতুর্থ প্রেম‌ও নড়বড়ে। সোশ্যাল মিডিয়াতে অভিরূপকে আনফলো শ্রাবন্তীর

খুবই দ্বায়িত্ববান মানুষ রাজ। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিরন্তর ট্রোলিং হ‌ই বডি শেমিংয়ের জন্য । আসলে যারা ট্রোল‌ করে তাদের হাতে ভরপুর সময় থাকে, কিন্তু সেই ট্রোল গুলো দেখার জন্য আমাদের হাতে ভরপুর সময় নেই। আমি এমনিতেই আবেগপ্রবণ মানুষ, সন্তান হওয়ার পর আরও আবেগপ্রবণ বেশি হয়েছি। ‌

যখন আমি কোভিড পজিটিভ হয়েছিলাম তখন আমাকে ইউভান এর থেকে অনেকটা দূরে থাকতে হয়েছিল। ওই সময় এটা আমার জীবনের অন্যতম কঠিন সময় ছিল। তবে যখন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলাম তখন ও আমায় জরিয়ে ধরল তখন সেই অনুভূতিটা যে কি ধরনের ছিল সেটা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না।”

Related Articles

Back to top button