স্বামীর প্রাণ কেড়েছে করোনা, অবসাদে দুই মেয়েকে নিয়ে আ’ত্মহ’ত্যার চেষ্টা গৃহবধূর

করোনা মানুষকে দেখিয়েছে বাস্তবের এক অন্ধকার চিত্র। এক লহমায় মানুষের দৈনন্দিন চেনা ছবিটা পাল্টে দিয়েছে এই মা-র-ণ রোগ। অনেকেই আজ রুজি রোজগারের সংস্থান হারিয়ে দূ-র্দ-শা-র চরম সীমায় নেমে গিয়েছেন। করোনার গ্রা-সের বলি হয়েছেন অসংখ্য মানুষ। তাঁদের পরিবার উজাড় হয়ে গিয়েছে। অনেকেই তাঁদের প্রিয়জনকে হারিয়ে শোকে স্ত-ব্ধ হয়ে গেছেন।

সংসার ভে-ঙে পড়েছে অনেকের‌ই। করোনার এই আবহে লকডাউনের ফাঁ-দে পড়ে অনেক মানুষের আজ দুবেলা দুমুঠো খাবার‌ও জুটছে না। আজ মানুষ শুধুমাত্র একটু কোনোরকমে বাঁচতে চাইছে। চারদিকে দেখা দিয়েছে ধ্বং-সের একটি করাল‌ ভ-য়-ঙ্ক-র রূপ। মৃ-ত্যুমিছিল চলছে তার সাথে পাল্লা দিয়ে। এর‌ই মধ্যে বাংলার একটি গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনে ঘটেছে একটি মর্মান্তিক ঘটনা।

আরও পড়ুন – সুশান্তের মৃ’ত্যুর ত’দন্ত করতে গিয়ে আজ মুম্বাই পুলিশের হাতে উঠে আসলো এক চা’ঞ্চ’ল্যকর তথ্য, একাংশের দাবী এটা কিভাবে সম্ভব!

এক পরিবার উজাড় হয়ে যেতে বসেছে। এক গৃহবধুর স্বামী ছিলেন প্রাইমারি শিক্ষক। তিনি করোনার বলি হয়েছেন। স্বামীকে হারিয়ে চরম দুরবস্থার মধ্যে পড়েছিলেন ওই গৃহবধূ। একসময় থাকতে না পেরে তিনি দুই শিশুকন্যাকে নিয়ে ঝাঁ-প মেরেছেন ট্রেনের সামনে।

আরও পড়ুন – এবছর কি হবে স্নাতক-স্নাতকোত্তরের পরীক্ষা? স্পষ্ট না জানালেও ইঙ্গিত দিলেন শিক্ষামন্ত্রী

কিন্তু রেল‌পুলিশের তৎপরতায় ওই মা এবং দুই বাচ্চা মেয়েকে গুরুতর জ-খ-ম অবস্থায় উদ্ধার করে মেডিক্যাল কলেজ এবং হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশনে।

এখানে আপনার মতামত জানান