ভয়াবহ চিত্র বাংলায়, স্বাদ চলে গিয়েছে, গায়ে জ্বর রয়েছে, তবুও করোনা পরীক্ষার ডেট ১২ দিন পরে

ভয়াবহ চিত্র বাংলায়, স্বাদ চলে গিয়েছে, গায়ে জ্বর রয়েছে, তবুও করোনা পরীক্ষার ডেট ১২ দিন পরে

নিজস্ব প্রতিবেদন: সারা ভারত জুড়ে হাহাকারের সূচনা করেছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। পশ্চিমবঙ্গ তথা সারা দেশজুড়ে অগণিত মানুষের মৃত্যু মিছিল চলছে। বহু মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছেন। এর পাশাপাশি সারা ভারতজুড়ে অক্সিজেনের যোগান এর সমস্যা দেখা দিয়েছে। শুধুমাত্র অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছেন বহু করোনা রোগীরাই। অরাজক অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে। ‌

এদিকে রাজ্যে যখন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে তখন শরীরে করোনার উপসর্গ নিয়ে অনেকেই রিপোর্ট করাতে পারছেন না। তার কারণ করোনা পরীক্ষার ডেট পাচ্ছেন ১২ দিন পরে। ততদিন শরীরে আরো জাঁকিয়ে বসছে এই ভাইরাস। করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে না পেলে ভর্তি নেবে না হাসপাতাল। উপসর্গ নিয়েই গৃহবন্দি থাকতে হচ্ছে মানুষজনকে। যার ফলে তার থেকে আরো সংক্রমিত হওয়ার ভয়ে থাকছে বাড়ির অন্যান্য সদস্যদের।

আরও পড়ুন-অমিল ভ্যাকসিন। ভ্যাকসিন দেওয়া অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দিল বাঁকুড়ার স্বাস্থ্যকেন্দ্র

এই দীর্ঘ সময় গৃহবন্দী থেকে আক্রান্ত ব্যাক্তিরা কিভাবে লড়াই করবেন ? এই ব্যাপারে কোনো উত্তর দিতে পারেননি স্বাস্থ্য বিভাগের কর্তারা।এরকম চিত্র অনেক জায়গাতেই দেখা গিয়েছে যে, পরীক্ষার রিপোর্ট পেতে অনেকটাই সময় ব্যায় হয়ে যাচ্ছে। ততদিন হোম আইসোলেশনে থাকতে থাকতে শরীরকে আরো কাবু করে ফেলছে করোনা ভাইরাস। এক সাংঘাতিক পরিস্থিতির শিকার হচ্ছেন মানুষজন।জায়গায় জায়গায় হসপিটালের বেড বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন । মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন অক্সিজেনের সমস্যা খুব শীঘ্রই দূর হয়ে যাবে। রাজ্যের হাতে আসতে চলেছে পর্যাপ্ত পরিমাণ অক্সিজেন।