নিউজ

নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!

নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!

নিজস্ব প্রতিবেদন:সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা আজকাল এমন অনেক ঘটনা সম্বন্ধে জানতে পারি যা আমাদেরকে আশ্চর্য করে রেখে দেয়।একদিকে যেমন এই সোশ্যাল মিডিয়া আমাদের সামনে নানান ধরনের মজাদার ঘটনা নিয়ে আসে; ঠিক তেমনভাবে এমন অনেক বিষয় আমরা জানতে পারি যা আমাদের মন ভারাক্রান্ত করে তোলে।

নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!

আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদন এর মাধ্যমে আমরা এমন একটি ঘটনা নিয়েই আলোচনা করতে চলেছি। প্রসঙ্গত মানুষের গোটা জীবনটাই লড়াইয়ের মাধ্যমে কাটাতে হয়। শিশু থেকে শুরু করে বয়স্ক সকলের মধ্যেই এই লড়াই বর্তমান।

নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!

সম্প্রতি নেট মাধ্যমে এমন একটি ঘটনা সম্পর্কে আমরা জানতে পারছি যেখানে নাতনির পড়াশেোনার খরচ চালাতে নিজের বাড়িটাও বিক্রি করে দিয়েছেন দাদু।

নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!

মুম্বইয়ের বাসিন্দা এই বৃদ্ধ দাদুর নাম দেসরাজ‌।সারা সকাল অটো চালিয়ে রোজগার, রাতে গুটিসুটি মেরে সেখানেই ঘুমিয়ে পড়া। সম্প্রতি ‘হিউম্যানস অব বম্বে’ নামের একটি ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে বৃদ্ধ দেসরাজের গল্পটি পোস্ট করা হয়। জানিয়ে রাখি একসময় ছেলে, মেয়ে, নাতি, নাতনি নিয়ে ভরা সংসার ছিল তাঁর।

নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!

কিন্তু এরপর দীর্ঘ সময় ধরে তার বড় ছেলে কোনভাবে নিখোঁজ হয়ে যায়। পরবর্তীতে তার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। কিন্তু এখনও পর্যন্ত মৃত্যুর কোন কারণ জানা যায়নি।এর ২ বছরের মাথায় ট্রেনে স্যুইসাইড করে ছোট ছেলেও । ৫ জন নাতিনাতনি নিয়ে দেসরাজের তখন অথৈ জলে । এরপর থেকেই শুরু হল অমানুষিক পরিশ্রম । কিন্তু তারপরেও জীবনে হার না-মেনে নাতি-নাতনিদের পড়াশোনা করিয়ে বড় করে তুলছেন তিনি।

নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!

বহু কষ্ট করে সংসার চালিয়ে তাদের পড়াশোনার খরচ চালিয়ে গিয়েছেন দেসরাজ। সম্প্রতি তার নাতনি উচ্চমাধ্যমিকে ৮০ শতাংশ নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে।নাতনির ইচ্ছা দিল্লি থেকে বি.এড করবে । নাতনিকে অন্য শহরে রেখে পড়াশোনা করাতে তাই শেষ সম্বল বাড়িটাও বেচে দিলেন দেসরাজ ।

নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!

স্ত্রী আর অন্য নাতিনাতনিদের রেখে এসেছেন গ্রামের বাড়িতে । নিজে থাকছেন অটোর মধ্যেই। আমরা আশা করব যাতে খুব শীঘ্রই তার দুঃখের দিন নিরাময় হয়ে ওঠে।প্রতিবেদনটি সম্পর্কে আপনাদের কোন মতামত থাকলে তা অবশ্যই কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না।

নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!
নাতিনাতনীর পড়াশোনার জন্য নিজের শেষ সম্বল বাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন! এখন রাত কাটাচ্ছেন অটোতে! অসহায় দাদু!

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button