নিউজটেক নিউজরাজ্য

মালদায় ধৃত চিনা নাগরিক হান জানুই মারাত্মক অপরাধী। কলকাতায় নিয়ে আসছে এসটিএফ।

নিজস্ব প্রতিবেদন: মালদার কালিয়াচক থেকে এক সন্দেহভাজন চিনা নাগরিককে গ্রেফতার করেছে বিএসএফ। ওই নাগরিকের কাছ থেকে পাওয়া গিয়েছে চিনা পাসপোর্ট, মোবাইল এবং ল্যাপটপ। বাংলাদেশ সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে প্রবেশ করেছিলেন ওই চিনা নাগরিক। পাসপোর্টে ওই ব্যক্তির নাম লেখা রয়েছে হান জুনেই।

হানের কাছ থেকে পাওয়া গিয়েছে বাংলাদেশ ও ভারতের টাকা, মার্কিন ডলার এবং টাকা পাঠানোর মেশিন। গত ২ রা জুন বিজনেস ভিসা নিয়ে বাংলাদেশে পা রেখেছিলেন হান। তদন্তে জানা গিয়েছে এই ব্যক্তি ২০১৯ সাল থেকে পরপর চারবার ভারতে এসেছিলো। হানের আরেক সঙ্গী সান জিয়াইংকে ব্যাঙ্ক প্রতারণার জন্য কয়েকদিন আগেই লক্ষ্ণৌ থেকে গ্রেফতার করেছে এটিএস।

আরও পড়ুন-একমাস বন্ধ থাকার পর আজ খুললো তারাপীঠ মন্দির

সানের কাছ থেকে এটিএস উদ্ধার করেছে প্রায় ১৫ টি সিমকার্ড।বিএসএফ তাকে জেরা করে জানতে পেরেছে তার বয়স হলো ৩৬ বছর। সে চীনের হেবেই এর বাসিন্দা। বিভিন্ন ব্যাঙ্ক প্রতারণার সাথে যুক্ত এই হান।

তার নামে নাকি ব্লু কর্ণার নোটিশ জারি হয়েছে। এছাড়াও সে প্রায় ১৩০০ ভারতীয় সিম চিনে নিয়ে গিয়েছে বলে জানিয়েছে । চার কোটি টাকা দিয়ে গুরুগ্রামে স্টার স্প্রিং নামক এক হোটেল‌ও কিনেছে এই ধৃত যুবক। তবে বিএসএফ জানিয়েছে এই হান জানুই কোনো সাধারণ মানুষ নন, তিনি মারাত্মক অপরাধী।

আরও পড়ুন-প্যান কার্ড হারিয়ে গেলে খুব সহজেই পেয়ে যাবেন ই প্যান। দেখে নিন কিভাবে পাবেন ই-প্যান

তার ল্যাপটপ এবং মোবাইল ফোন থেকে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। মান্দারিন ভাষায় তার মোবাইল এবং ল্যাপটপের পাসওয়ার্ড সেট করা রয়েছে। তাই মান্দারিন ভাষা জানা কাউকে খুঁজছে পুলিশ। এসটিএফ হানকে আরো জেরা করতে চায়।

আরও পড়ুন-আগামী দুই থেকে তিন ঘন্টার মধ্যে ব্যাপক বৃষ্টিপাত হতে চলেছে বেশ কয়েকটি জেলায়।

ধৃত হানকে খুব শীঘ্রই কলকাতায় নিয়ে আসা হবে বলে জানা গিয়েছে। গতকাল তাকে আদালতে তোলা হয়েছিলো। বিচারক হানকে ১০ দিন এস‌টিএফ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছে। তার কথায় বিভিন্ন অসঙ্গতি দেখছেন গোয়েন্দারা।

আর্থিক প্রতারণা ছাড়াও তার ভারতে আগমনের প্রকৃত কারণ খুঁজে বের করতে সচেষ্ট হয়েছেন গোয়েন্দারা।

Related Articles

Back to top button