নিউজ

দারুন সুখবর! 15 সেপ্টেম্বর থেকেই শুরু হচ্ছে দুয়ারে রেশন প্রকল্প! কারা কারা পাবেন এই সুবিধা? জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন:-মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় শুরু হতে চলেছে দুয়ারে রেশন প্রকল্প । মূলত রেশন দোকানে ভিড় এবং তার পাশাপাশি লম্বা লাইন কে এড়ানোর জন্য এই ধরনের প্রকল্প সূচনা করেছে রাজ্য সরকার । এই প্রকল্পের মাধ্যমে আপনারা আপনার বাড়ির দরজা পেয়ে যাবেন এক মাসের রেশন এবং এর জন্য আপনাকে রেশন দোকানে যাবার দরকার নেই । সেই রেশন ডিলারের গাড়িতে থাকবে যাবতীয় যন্ত্র ।

এমনটাই ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । কিন্তু রাজ্যবাসীর মনে প্রশ্ন আসতে শুরু করেছিল কবে থেকে এই প্রকল্প শুরু হবে ।।প্রাথমিকভাবে এমনটা জানানো হয়েছিল যে এটা শুরু হবে ভাই ফোটার পর থেকে । কিন্তু সেই দিনক্ষণ আরও এগিয়ে নিয়ে এসেছে রাজ্য সরকার ।আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হতে চলেছে এই প্রকল্প গোটা রাজ্যে । কিন্তু তার আগে রাজ্য সরকার তরফ থেকে একটি নতুন নির্দেশিকা জারি করেছে আসুন আমরা জেনে নেব দেশি গুলি কি কি ।

১) খাদ্য দফতরের নির্দেশিকা অনুযায়ী, কবে কোথায় দুয়ারে রেশন প্রকল্প হবে তা পূর্ব নির্ধারিত থাকবে। সেই মতোই পূর্ব ঘোষিত সময়ে, পূর্ব নির্ধারিত দিনে নির্দিষ্ট কোনও পাড়া, গ্রাম বা পল্লিতে খাদ্যশস্য, ই-পস যন্ত্র, ও ওজন করার মেশিন নিয়ে হাজির হবেন রেশন ডিলার রা।

২. রেশন ডিলাররা নিজ নিজ এলাকার ভৌগলিক অবস্থান, উপভোক্তার সংখ্যা, কাজের পরিমাণ বিবেচনা করে এক কিংবা দু’জন কর্মীর সহযোগিতায় নিজের গাড়ি বা ভাড়া করা গাড়িতে খাদ্যশস্য উপভোক্তার কাছে পৌঁছে দেবেন।

৩. উপভোক্তাদের প্রাপ্য চাল, গম, চিনি একবারেই দিতে হবে।

৪. একই পরিবারের যে কোনও সদস্যই ই-পস যন্ত্রে বায়োমেট্রিক বা আধার কার্ডের প্রমাণ দিয়ে দুয়ারে রেশনে থাকা পুরো পরিবারের প্রাপ্য খাদ্যশস্য বাড়িতে পেতে পারেন। যদি কোনও উপভোক্তা বিশেষ কারণ বশত সেই রেশন গ্রহণ করতে না পারেন, পরে রেশন দোকান যেদিন খোলা থাকবে, সেদিন গিয়ে তা নিয়ে আসতে পারবেন।

তবে তার পাশাপাশি রাজ্য সরকারের তরফ থেকে এমনটা জানানো হয়েছে যে দর্শন প্রকল্প পাবার জন্য অতি অবশ্যই কিন্তু আপনার আধার কার্ডের সাথে আপনার লিংক থাকা বাঞ্ছনীয় ।যদি এমনটা না হয় তাহলে কিন্তু আপনি এই সুযোগ সুবিধা পাবেন না।

Related Articles

Back to top button