নিউজদেশপলিটিক্স

“সন্তানের জন্ম দেওয়া একটি প্রাকৃতিক বিষয়ে। এতে কারো দখলদারি উচিৎ নয়।”- জন্ম নিয়ন্ত্রণ আইন প্রশাসনের বললেন ইউপি’র সাংসদ

নিজস্ব প্রতিবেদন: উত্তরপ্রদেশের পঞ্চায়েত মন্ত্রী বলেছিলেন যে, “মারাত্মক হারে বৃদ্ধি ভক্ত জনসংখ্যা সারা দেশের জন্য যথেষ্ট বিপদজনক। এই বেড়ে চলা জনসংখ্যার জন্যই দেশের মধ্যে বিভিন্ন সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। সাধারণ মানুষের মধ্যে বেকারত্ব অনেকটাই বেড়েছে এই বৃদ্ধিপ্রাপ্ত জনসংখ্যার জন্য।

অবিলম্বে কড়াভাবে দেশের মধ্যে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ আইন চালু করা উচিৎ।”এছাড়াও অসমে দ্বিতীয়বার বিজেপি সরকার গঠন করার পর অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা দুই সন্তান নীতি অবিলম্বে বলবৎ করার কথা ঘোষণা করেছেন। তিনি বলেছেন যে “সারা রাজ্যের মধ্যে যদি কোন দম্পতির দুটির বেশি সন্তান হয়, তাহলে সেই দম্পতি সরকারি সমস্ত পরিকল্পনা থেকে বঞ্চিত হবেন। “

আরও পড়ুন-স্মার্ট সিটি মিশনে দেশে সেরা হল উত্তরপ্রদেশ। সেরা শহর হল সুরাট, ইন্দোর।

অসমের মুখ্যমন্ত্রীর এই আইনের ঘোষণার পরেই উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ঠিক এই ধরনের একটি আইন বলবৎ করার কথা ভাবছেন। আর এই পরিস্থিতিতে উত্তরপ্রদেশের মাটিতে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ আইন প্রসঙ্গে এক বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন সমাজবাদী পার্টির সাংসদ শফিকুর রহমান বার্ক। তিনি বলেছেন,”মানুষের জন্ম হলো একটি প্রাকৃতিক বিষয়।

আরও পড়ুন-“৩৭০ ধারা না ফিরলে ভোটে দাঁড়াবো না।”- আবার সোচ্চার মেহবুবা মুফতি।

‌ সন্তান হলো আল্লাহর দান। আল্লাহ’র হাতেই রয়েছে জীবন এবং মৃত্যু। মানুষের এই জন্মে বিষয়ে কাউকে কখনোই দখল দেওয়া উচিত নয়। প্রকৃতি ঠিক করবেন যে কত সন্তান মানুষের জন্ম গ্রহণ করবেন।

প্রকৃতির এই কাজে দখল দেওয়ার অধিকার মানুষের একদমই নেই। তাই জন্মনিয়ন্ত্রণ নীতি লাগু করার কোন দরকার নেই।”

Related Articles

Back to top button