নিউজ

চার বছর পর মদন তামাং খুনে হাইকোর্টে গেলো সিবিআই। উঠলো জল্পনা।

নিজস্ব প্রতিবেদন: দীর্ঘ চার বছর পূর্বে অখিল‌ ভারতীয় গোর্খা লিগ নেতা মদন তামাং হত্যাকান্ডে বিমল গুরুং কে রেহাই দিয়েছিলো নিম্ন আদালত। এবার চার বছর পর নিম্ন আদালতকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছে সিবিআই। এদিকে মদন তামাং এর স্ত্রী’ও হাইকোর্টে আবেদন করেছেন। গতকাল হাইকোর্টের বিচারপতি তীর্থঙ্কর ঘোষের এজলাসে এই দুটি মামলার শুনানি হ‌ওয়ার কথা ছিলো।

কিন্তু গতকাল বিচারপতি এই মামলাটি গ্রহণ করতে চাননি, তিনি উক্ত দুটি মামলা পাঠিয়ে দিয়েছেন প্রধান বিচারপতির বেঞ্চে। গত ২০১০ সালের ২১ শে মে দার্জিলিং এর মাটিতে খুন হয়েছিলেন মদন তামাং। ওই সময়ে এই হত্যাকান্ডে বিমল গুরুং সহ ৩০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল । বিমল গুরুংয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল যে তিনি এই খুনের আগে ঘনিষ্ঠ অনুচরদের নিয়ে একটি বৈঠক করেছিলেন যেখানে বিমল গুরুং কে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়েছিলো।

আরও পড়ুন –হাজতবাস পরীমনির। আদালত নাকচ করলো জামিনের আবেদন।

এই ঘটনার তদন্ত ভার সিআইডির হাতে থাকলেও পরবর্তীকালে তদন্তভার গ্রহণ করে সিবিআই । সিবিআই বিমল গুরুং সহ আরও কয়েকজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট পেশ করেছিল । গত ২০১৭ সালে এই মামলা থেকে বিমল গুরুং কে রেহাই দিয়েছিলো কলকাতার নগর দায়রা আদালত। কিন্তু আবার এই ঘটনায় নিম্ন আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে সিবিআই। এক্ষেত্রে সিবিআইয়ের আইনজীবী অনির্বাণ মিত্র বলেছেন,

“মদন তামাং হত্যাকাণ্ডে বিমল গুরুং যে জড়িত রয়েছেন, সেই পরিপ্রেক্ষিতে বেশ কিছু তথ্য প্রমাণ সিবিআইয়ের হাতে এসেছে।” এদিকে দীর্ঘ চার বছর পর সিবিআইয়ের সক্রিয়তায় রাজনৈতিক যোগাযোগের বিষয়টি উত্থাপন করছেন তৃণমূল নেতারা । তৃণমূল নেতারা বলছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে প্রকাশ্যে সমর্থন জানিয়েছেন বিমল গুরুং , তাই তাকে পরিকল্পনামাফিক সিবিআই দ্বারা ফাঁসানোর চেষ্টা করছে বিজেপি সরকার । এমনটাই দাবি করেছে তৃণমূল নেতৃত্ব।

Related Articles

Back to top button