“টাকা ছাপিয়ে খরচ করুন।”- দেশের জিডিপি বাড়াতে উপায় বাতলে দিলেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম।

“টাকা ছাপিয়ে খরচ করুন।”- দেশের জিডিপি বাড়াতে উপায় বাতলে দিলেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম।

নিজস্ব প্রতিবেদন: দেশের বেশীরভাগ রাজ্যে বর্তমানে জারি রয়েছে লকডাউন। এই পরিস্থিতিতে অনেক জায়গাতেই বন্ধ হয়ে রয়েছে কারখানা, অফিস গুলো। আর্থিক সঙ্কটে পড়েছেন অগণিত মানুষজন। বিভিন্ন রাজ্যে কড়া লকডাউনের মধ্যেও শিল্পক্ষেত্র গুলি বিভিন্ন ভাবে সচল রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে। প্রথম পর্যায়ের লকডাউন থেকেই ভারতের অর্থনীতি অনেকটাই টালমাটাল খেয়েছে। কিন্তু আনলক চালু হ‌ওয়ার পরে ভারতের অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াবে বলে আশা করা হচ্ছিলো।

কিন্তু তারপরেই আবার দ্বিতীয় পর্যায়ের করোনার ঢেউ এসে আছড়ে পড়েছে ভারতের বুকে। ভারতীয় অর্থনীতি যথেষ্ট বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়েছে। এই ভয়াবহ পরিস্থিতির দরুণ ২০২০-২১ আর্থিক বছরের প্রথম ত্রৈমাসিকে আর্থিক বৃদ্ধি কমে হয়েছিলো ২৪.৩৮%। NSO তথ্য দিয়েছে যে ২০২০-২০২১ আর্থিক বছরে আর্থিক বৃদ্ধি কমেছে ৭.৩%। কিন্তু ২০১৯-২০ আর্থিক বছরে আর্থিক বৃদ্ধি হয়েছিলো ৪%।আগামী দিনে পরিস্থিতি আরো জটিল আকার ধারণ করতে চলেছে।

আরও পড়ুন-মাসিক ৫ হাজার টাকা ভাতা, বিনামূল্যে রেশনের দাবীতে ব্যাপক বিক্ষোভ দেখালো রোহিঙ্গারা।

জানুয়ারি থেকে মার্চের মধ্যে লকডাউন ছিলো না, কিন্তু ওইসময়েই আর্থিক বৃদ্ধি হয়েছিলো মাত্র ১.৬%। অর্থাৎ দিন দিন বেহাল হচ্ছে রাষ্ট্রের অর্থনীতি। কেন্দ্রীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক আভাস দিয়েছিলো যে গত আর্থিক বছরে ৭.৫% সঙ্কোচন ঘটবে। জিডিপি থাকবে -৮%।বর্তমান এই ভয়াবহ পরিস্থিতি কে উদ্ধার পাওয়ার জন্য বেশ কয়েকটি উপায় বাতলে দিয়েছেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরম। ‌ তিনি কেন্দ্রের ওপর আক্রমণ শানিয়ে বলেছেন , “গত চার দশকের মধ্যে সবথেকে পিছিয়ে পড়া বছর হল ২০২০-২১ অর্থ বর্ষ।“প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী নিদান দিয়েছেন যে, “এই পরিস্থিতি থেকে উদ্ধার পাওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে টাকা ছাপিয়ে খরচ করতে হবে। এর জন্য রাজস্ব ঘাটতির কথা ভাবলে চলবে না। ধার করে অথবা টাকা ছাপিয়ে খরচ করতে হবে।”