আজ হাসপাতাল থেকে ছাড়া হতে পারে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য এবং তাঁর স্ত্রীকে।

আজ হাসপাতাল থেকে ছাড়া হতে পারে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য এবং তাঁর স্ত্রীকে।

নিজস্ব প্রতিবেদন: করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। এছাড়াও তাঁর স্ত্রী মীরা ভট্টাচার্য‌ও করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। গত ১৮ ই মে করোনা আক্রান্ত হ‌ওয়ার পরে বাড়িতে থেকেই চিকিৎসা চলছিলো বুদ্ধদেব বাবুর। এর মধ্যে গত সপ্তাহে মঙ্গলবার তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। উডল্যান্ডস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিলো প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কে। গত সপ্তাহে মঙ্গলবার তাঁর অক্সিজেনের মাত্রা অতি সংকটজনক ভাবে নেমে গিয়েছিল ৮০ এর কাছাকাছি। তাঁর চিকিৎসার উদ্দেশ্যে ছয় সদস্যবিশিষ্ট একটি চিকিৎসক দল গঠিত হয়।

গত বুধবার সকালে তাঁর চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন যে, বুদ্ধদেব বাবুর শরীর বর্তমানে যথেষ্ট স্থিতিশীল রয়েছে। তাঁকে বাইপ্যাপের সাহায্যে অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে। বর্তমানে তাঁর রক্তে শর্করার পরিমাণ‌ও স্বাভাবিক রয়েছে। রেমডিসিভির পঞ্চম এবং শেষ ইনজেকশন দেওয়া হয়েছে বুদ্ধদেব বাবুকে। ইতিমধ্যেই আরো কিছু টেস্ট হয়েছে তাঁর।গতকাল মঙ্গলবার বুদ্ধদেব বাবুর চিকিৎসকরা জানিয়েছেন যে এখনো পর্যন্ত তিনি বাইপ্যাপ সাপোর্টে রয়েছেন। তবে বর্তমানে যথেষ্ট স্থিতিশীল রয়েছে তার শারীরিক পরিস্থিতি।

আরও পড়ুন-করোনার দৈনিক সংক্রমণের মধ্যে রেকর্ড পতন। আশায় বুক বাঁধছেন তামাম ভারতীয়রা।

রাতে ভালো ঘুমিয়েছেন তিনি। বর্তমানে তার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। সারাদিনে ১ থেকে ২ লিটার অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে তাঁকে। স্বাভাবিকভাবেই খাওয়া দাওয়া করছেন তিনি। এছাড়াও স্থিতিশীল রয়েছেন তাঁর স্ত্রী মীরা ভট্টাচার্য।উডল্যান্ডস হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে, আজ‌ই হয়তো হাসপাতাল থেকে ছাড়া হতে পারে বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে। তাঁর স্ত্রী মীরা ভট্টাচার্য কেও ছাড়া হতে পারে আজ‌ই। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন যে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের সমস্ত মেডিক্যাল রিপোর্ট আপাতত স্বাভাবিক রয়েছে, তাই আজ‌ই হয়তো তাঁরা বাড়ি যেতে পারবেন হাসপাতাল থেকে।