করোনার দাপটে এবং ইয়াসের আবহে আগুন পিঁয়াজের বাজারে। মাথায় হাত মধ্যবিত্তের।

করোনার দাপটে এবং ইয়াসের আবহে আগুন পিঁয়াজের বাজারে। মাথায় হাত মধ্যবিত্তের।

নিজস্ব প্রতিবেদন: রাজ্য তথা দেশজুড়ে চোখ রাঙাচ্ছে করোষা ভাইরাস। এখনো পর্যন্ত সারা দেশে করোনার গ্রাসে পড়েছেন মোট ২ কোটি ৮৬ লক্ষ ৯৪ হাজার ৮৭৯ জন। মৃত্যু হয়েছে ৩ লক্ষ ৪৪ হাজার ১০১ জনের। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ কোটি ৬৭ লক্ষ ৯৫ হাজার ৫৪৯ জন। সারা ভারত জুড়ে এখনো অর্ধেক মানুষকেও টীকা দেওয়া সম্ভব হয়নি।
এদিকে এখনো পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গের ১ কোটি ৪১ লক্ষ মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে।

ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ১.১ কোটি মানুষকে এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ৪০ লক্ষ মানুষকে। এদিকে ইয়াসের তান্ডবে লন্ডভন্ড হয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরের বিস্তীর্ণ এলাকা। দীঘা উপকূল সহ তাজপুর, রামনগর, মন্দারমণি, শঙ্করপুর প্রভৃতি জায়গা গুলি যথেষ্ট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সুন্দরবনের বেশ কিছু অঞ্চলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করেছে ইয়াস। সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে সমুদ্রের জল ঢুকে বন্যা সৃষ্টি করেছে।

আরও পড়ুন-অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন নুসরত? “আমার সন্তান নয়।”- বললেন নুসরতের স্বামী নিখিল জৈন।

কয়েক হাজার মানুষ নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে ত্রাণ শিবিরে আশ্রয় নিয়েছেন। একের পর এক মাছের ভেড়ি ডুবে গিয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ক্ষেতের ফসল। একদিকে করোনা আর অপরদিকে ইয়াসের দাপটে এবার আগুন লেগেছে সবজির বাজারে।কয়েকদিন আগে পর্যন্ত পিঁয়াজ বিক্রি হচ্ছিলো ২০ টাকা প্রতি কেজিতে। আগামী শুক্রবার তার দাম বেড়ে হয়েছে ৩৫ থেকে ৪০ টাকা প্রতি কেজি।

আরও পড়ুন-ভোটের পরেই আবার ময়দানে নামছেন তৃণমূলের ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর।

বিক্রেতারা বলেছেন পাইকারি বাজারে বেড়েছে দাম তাই খুচরো বাজারে তার প্রভাব পড়ছে। গত তিনদিন আগে পর্যন্ত পিঁয়াজের পাইকারী ৪০ কেজির দাম ছিলো প্রায় ৯৫০ টাকা। আজ শনিবার সেই পাইকারি ৪০ কেজির মূল্য দাঁড়িয়েছে ১২০০ টাকা। যার ফলে মাথায় হাত পড়েছে মধ্যবিত্ত এবং নিম্নবিত্তের। এদিকে পিঁয়াজের পাশাপাশি দাম বেড়েছে বেগুন, আলু থেকে শুরু করে অন্যান্য কাঁচা আনাজের‌ও।