“বিরোধী দলনেতার কাজ যেটা সেটাই করুন।”- শুভেন্দু কে বিঁধলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

“বিরোধী দলনেতার কাজ যেটা সেটাই করুন।”- শুভেন্দু কে বিঁধলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

নিজস্ব প্রতিবেদন: গত শনিবার তৃণমূল ভবনে সাংগঠনিক বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। জানা গিয়েছে ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন জেলা সভাপতি, সাংসদ, পুর প্রশাসক এবং বিধায়করা । করোনা পরিস্থিতির জন্য দূরবর্তী জেলার প্রতিনিধিদের ভার্চুয়াল মাধ্যমে এই বৈঠকে অংশগ্রহণ করতে বলা হয়েছিলো। এই বৈঠকে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তার মধ্যে অন্যতম হল যুব তৃণমূলের সভাপতি পদ থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইস্তফা। জানা গিয়েছে এবার তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক পদে আসীন হয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর জায়গায় যুব তৃণমূলের সভাপতি পদে আসীন হয়েছেন তৃণমূলের আসানসোলের তারকা প্রার্থী সায়নী ঘোষ। সর্বভারতীয় সভাপতি পদে আসীন হয়েই অভিষেক তীব্রস্বরে আক্রমণ শানিয়েছেন বিজেপির রধান বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী কে।

আরও পড়ুন-“গরুর গাড়ির আবার হেডলাইট”- অভিষেকের পদোন্নতিতে কটাক্ষ করলেন বিজেপি নেতা তথাগত রায়। প্রতিক্রিয়া তৃণমূলের।

অভিষেক বলেছেন, “আপনি বাংলার কুৎসা বর্জন করে প্রকৃত বিরোধী দলনেতার ভূমিকা পালন করুন। দিল্লির আজ্ঞাবহ থেকে আপনি বাংলার সমগ্র মানুষকে অপমান করছেন । আপনি প্রকাশ্যে বলছেন যে বাংলার ৪০ লক্ষ মানুষ কাজ করেন বিজেপি শাসিত রাজ্য গুলিতে, সেখানেই তাদের দেখে নেওয়া হবে বলে হুমকি দিচ্ছেন আপনি। এই ধরনের হুমকির কথাবার্তা বাংলার মানুষ কিছুতেই বরদাশ্ত করবেন না ।

আরও পড়ুন-“হিটলারের ছোটো ভাই নরেন্দ্র মোদী।”- প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

আমি আপনাকে পরামর্শ দেবো যে আপনি বাংলার প্রশাসনের শুধু শুধু কুৎসা কার সময় বাদ দিয়ে একটু ভালো কাজ‌ও করুন। ৪০ লক্ষ বাঙালি বাইরে থাকে। আপনি তাঁদের দেখে নেবেন বলছেন। সমস্ত মানুষ আপনাকে এর উত্তর দেবে। এই ধরণের কুৎসা না রটিয়ে নিজেরা কিছু গঠন মূলক উদ্ভাবন করতে চেষ্টা করুন।”