নিউজ

৬ ঘন্টা ধরে ফ্ল্যাটেই বন্দী করোনা রোগীর মৃতদেহ। দরজা ভেঙে উদ্ধার করলো পুলিশ।

নিজস্ব প্রতিবেদন: সারা দেশ জুড়ে ভয়াবহ চিত্র ধরা পড়েছে করোনার এই আবহে। দিনের পর দিন বহু মানুষের প্রাণ যাচ্ছে এই ভাইরাস এর শিকার হয়ে। এর পাশাপাশি বেশ কিছু জায়গায় স্বাস্থ্য দপ্তরের চরম অব্যবস্থা লক্ষিত হয়েছে । অনেক জায়গাতেই দেখা দিয়েছে সময়মতো অ্যাম্বুলেন্স পাওয়া যাচ্ছে না আবার অনেক জায়গাতে বেড পাওয়া যাচ্ছে না। বেশ কিছু জায়গায় করোনা রোগীদের মৃতদেহ পড়ে থাকছে ঘন্টার পর ঘন্টা। চরম অচলাবস্থা দেখা দিয়েছে দিকে দিকে। আবার অনেক জায়গাতে হাসপাতালে ভর্তি হতে নাজেহাল হয়ে যাচ্ছেন রোগীরা।

একটা অমানবিক ঘটনা ঘটেছে গড়িয়াহাট থানা এলাকার ১৯ নম্বর ফার্ন রোডে। করোনা রোগীর মৃতদেহ টানা ৬ ঘন্টা ফ্ল্যাটেই পরে থাকার পর পুলিশ এসে দরজা ভেঙে উদ্ধার করেছে রোগীর মৃতদেহ।এছাড়াও গতকাল বাগুইহাটিতে ১৫ ঘন্টা পর উদ্ধার করা হয়েছে এক করোনা রোগীর মৃতদেহ। এছাড়াও এই চিত্র দেখা গিয়েছে সোনারপুর থেকে শুরু করে গড়ফা, তিলজলা, লেকটাউনেও।

আরও পড়ুন-অক্সিজেন প্ল্যান্ট স্থাপন করতে উদ্যোগ নিলেন অধীর চৌধুরী।

জানা গিয়েছে গড়িয়াহাট ১৯ নম্বর ফার্ন রোড নিবাসী ৪৯ বছর বয়সী মহিলা সন্ধ্যা মাহাতো একটি ফ্ল্যাটে একাই থাকতেন। তার সাথে কোন পরিবারের সদস্য থাকতেন না। দিন কয়েক আগে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। তারপর থেকেও একাই ছিলেন ফ্ল্যাটে। গতকাল দুপুর থেকে তিনি আর বাইরে বেরোন নি। সন্দেহ হয় প্রতিবেশীদের, পুলিশে খবর দিলে টানা ৬ ঘন্টা পর পুলিশ এসে ওই মহিলার মৃতদেহ উদ্ধার করে ফ্ল্যাটের দরজা ভেঙে। অনেকক্ষণ ধরে মৃতদেহ পড়ে থাকায় যথেষ্ট আতঙ্কে রয়েছেন প্রতিবেশীরা। সকলেই প্রশাসনের বেহাল অবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

Related Articles

Back to top button