নিউজপলিটিক্সরাজ্য

“কে ফলক লাগাচ্ছে, আর কে ভাঙছে সেটা কি আমার জানার কথা?”- ফলক কেলেঙ্কারি প্রসঙ্গে বললেন ফিরহাদ হাকিম

নিজস্ব প্রতিবেদন: কসবার ভুয়ো ভ্যাকসিনেশন কান্ডে ধৃত দেবাঞ্জনকে নিয়ে আরো ঘনীভূত হচ্ছে রহস্য। এদিকে দেবাঞ্জনের সাথে একাধিক তৃণমূল নেতা মন্ত্রীদের ওঠা বসা ছিল বলে দাবি করেছে বিজেপি। তৃণমূল মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম সহ সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং আরো বেশ কয়েকজন তৃণমূল নেতার সাথে দেবাঞ্জনের বেশ কয়েকটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়েছে।এছাড়াও বিজেপির মিডিয়া সেলের প্রধান সপ্তর্ষি চৌধুরী একটি ছবি পোস্ট করেছেন যেখানে দেখা গিয়েছে তালতলায় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের একটি মূর্তির ফলক উন্মোচনের অনুষ্ঠানে রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম এবং সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে উপস্থিত রয়েছে দেবাঞ্জনের নাম।

সেখানে দেবাঞ্জনের পরিচয় উল্লেখ করা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের যুগ্ম সচিব হিসেবে।এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বরানগরের বিধায়ক তাপস রায়, চৌরঙ্গী বিধায়ক নয়না বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অনেকেই। এই ফলকটির কথা সোশ্যাল মিডিয়ায় এবং সংবাদ মাধ্যমে সম্প্রচারিত হতেই নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। অবিলম্বে ওই ফলকটি ভেঙে দিয়েছে কলকাতা পুরসভা।

আরও পড়ুন-জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে রিকশ চালালেন মদন মিত্র

এই মূর্তি উন্মোচিত হয়েছিলো তালতলায় গত ২৬ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১। এই মূর্তিটিতেই ফিরহাদের সাথে ফলকে দেবাঞ্জনের নাম লেখা ছিলো এবং দেবাঞ্জনের পরিচয় দেওয়া হয়েছিলো যুগ্ম সচিব হিসাবে।পুর প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য অতীন ঘোষ বলেছেন, “কলকাতা পুরসভা এই মূর্তি প্রতিষ্ঠা করেনি। ফলকে যাদের নাম ছিলো তারা কেউ মূর্তি উন্মোচনের সময় ছিলেন না।”

আরও পড়ুন-কৃষক আন্দোলনের সমর্থনে বিক্ষোভ। গান্ধী মূর্তির পাদদেশে আটক হলেন ন‌ওশাদ সিদ্দিকী।

ফিরহাদ হাকিম এই ফলকটির প্রসঙ্গে বলেছেন,”যখন নীরব মোদীর সাথে নরেন্দ্র মোদীর নাম জড়ায় তখন কেলেঙ্কারির কিছু হয়না, আর একটা ফলক ঘিরেই আমার নামে আজেবাজে কথা রটানো হচ্ছে। কে ফলক লাগাচ্ছে আর কে ভাঙছে সেটা কিকরে জানবো? আমি ওই অনুষ্ঠানে আদৌ যাইনি। দেবাঞ্জনের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করবে প্রশাসন।

সিট গঠন করা হয়েছে। সারাটা জীবন মানুষের জন্য কাজ করে এলাম আর এখন আমার নামে একটা সামান্য বিষয়ে কুৎসা রটানো হচ্ছে।”

Related Articles

Back to top button