নিউজপলিটিক্সরাজ্য

আলাদা উত্তরবঙ্গের দাবীতে ঘৃতাহুতি দিয়েও একসাথে থাকার বার্তা দিলীপ ঘোষের।

নিজস্ব প্রতিবেদন: কয়েকদিন ধরেই পৃথক উত্তরবঙ্গের দাবিতে বিজেপি যথেষ্ট অস্বস্তির মধ্যে পড়েছে। আলিপুরদুয়ারের বিজেপি সভাপতি জন বারলা পৃথক উত্তরবঙ্গের দাবিতে সরব হয়েছেন। এছাড়াও বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ, এবং আরো বেশ কয়েকজন বিজেপি বিধায়ক পৃথক উত্তরবঙ্গের দাবিতে সরব হয়েছেন। এই আবহে যথেষ্ট অস্বস্তিকর পরিস্থিতির মধ্যে পড়েছে বিজেপি।

বিরোধী দলগুলি এই বঙ্গভঙ্গের বিষয়ে বারবার সমালোচনায় বিদ্ধ করছে বিজেপিকে। কিন্তু বিজেপির শীর্ষ নেতারা জানিয়েছেন বিজেপি কিছুতেই বঙ্গভঙ্গ কে সমর্থন করে না। গতকাল রবিবার কোচবিহারে উপস্থিত হয়েছিলেন দিলীপ ঘোষ। কয়েকদিন তিনি উত্তরবঙ্গ সফরে গিয়েছেন।

আরও পড়ুন-উত্তরপ্রদেশের নির্বাচনে ১০০ টি আসনে প্রার্থী দেওয়ার ঘোষণা করলো আসাউদ্দিনের মিম।

দিলীপ ঘোষ গতকাল কোচবিহারে বলেছেন, স্বাধীনতার পরবর্তী সময় থেকে উত্তরবঙ্গের মানুষের সাথে শুধুমাত্র বঞ্চনা হয়ে এসেছে। এই উক্তির মাধ্যমে কার্যত তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন যে পৃথক উত্তরবঙ্গের দাবির যথেষ্ট গুরুত্ব রয়েছে। এছাড়াও দিলীপ ঘোষ বলেছেন যে, “স্বাধীনতার পরবর্তী সময় থেকে কংগ্রেস, সিপিএম এবং তৃণমূলকে ভোট দিয়ে উত্তরবঙ্গের মানুষ জিতিয়েছে। ‌ কিন্তু তারপরেও তাদের সাথে বঞ্চনাই করা হয়েছে।”

আরও পড়ুন-বঙ্গ বিভাজনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপি বিধায়কের বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখালো তৃণমূল সমর্থকরা

গত শনিবার উত্তরবঙ্গের বিজেপি বিধায়ক শঙ্কর ঘোষ ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, “উত্তরবঙ্গের মানুষ দক্ষিণ বঙ্গের সমস্ত জনতাকে আপন করে নিতে জানে , তেমনি দক্ষিণবঙ্গের মানুষও উত্তরবঙ্গ কে আপন করে নিয়েছে। “কয়েকদিন আগেই আলিপুরদুয়ারের বিজেপি সভাপতি জন বারলা পৃথক উত্তরবঙ্গের দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন। তিনি বলেছেন “উত্তরবঙ্গের মানুষকে চিরটা কাল তৃণমূল সরকার বঞ্চিত করে এসেছে। তাই উত্তরবঙ্গ কে আলাদা রাজ্য রূপে গড়ে তুললে উত্তরবঙ্গের মানুষ সুখ-সমৃদ্ধির দেখা পাবেন।”

Related Articles

Back to top button