নিউজপলিটিক্সরাজ্য

নাড্ডার কাছে পরবর্তী সভাপতি হিসাবে বিজেপির তরুণ সাংসদের নাম প্রস্তাব করলেন দিলীপ ঘোষ।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রাজ্যে বিজেপির কর্মযজ্ঞের দায়িত্বভার রয়েছে তার কাঁধে। বারবার বিভিন্ন ইস্যুতে তিনি বিতর্কিত মন্তব্য করে সংবাদের শিরোনামে জায়গা করে নিয়েছেন। এ হেন সেই দিলীপ ঘোষের রাজ্য সভাপতি পদে কার্যকালের মেয়াদ এবার শেষ হতে বসেছে।

এবার পরবর্তী রাজ্য বিজেপি সভাপতি কে হতে চলেছেন সেই নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে উঠেছে। জানা গিয়েছে স্বয়ং বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা , দিলীপ ঘোষের কাছে পরবর্তী রাজ্য বিজেপি সভাপতি কাকে করা যায় সেই বিষয়ে প্রস্তাব চেয়েছেন। সেই প্রস্তাবের পরিপ্রেক্ষিতে বালুরঘাটের তরুণ বিজেপি সাংসদের নাম পরবর্তী রাজ্য বিজেপি সভাপতি হিসাবে উল্লেখ করেছেন দিলীপ ঘোষ। কিন্তু এখনো তিনি এই বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি।

আরও পড়ুন-“উপনির্বাচনে স্বমহিমায় ফিরবে বিজেপি”- মুকুল রায়ের বেফাঁস মন্তব্যের ভিডিও ভাইরাল

২০২২ সালের ডিসেম্বর নাগাদ রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের কার্যকালের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার কথা রয়েছে। যদিও ২০১৮ সালেই তাঁর এই মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার কথা ছিল কিন্তু লোকসভা ভোটের জন্য এক্সটেনশন দেওয়া হয়েছিল দিলীপ ঘোষকে। কারণ পশ্চিমবঙ্গের মাটিতে দিলীপ ঘোষের প্রভাব রয়েছে অনেকটাই বেশি। তাই এই মর্মে দিলীপ ঘোষের উপর প্রথম থেকেই যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে আসছে দল।

দ্বিতীয় বারেও বিজেপির রাজ্য সভাপতি পদে আসীন হন দিলীপ ঘোষ। কিন্তু নিয়ম অনুযায়ী দু বারের বেশী কেউ রাজ্য সভাপতি পদে আসীন থাকতে পারেন না। তাই এবার দিলীপ ঘোষের বিকল্প খোঁজা শুরু হয়ে গিয়েছে । এই পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা দিলীপ ওসির কাছে পরবর্তী রাজ্য বিজেপি সভাপতির নাম প্রস্তাব করতে বললে উত্তরে দিলীপ ঘোষ জানান বালুরঘাটের তরুণ বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার এই পদের জন্য যথেষ্ট যোগ্যতম একজন ব্যক্তি।

আরও পড়ুন-অনুব্রত মণ্ডলের নির্দেশে দুবরাজপুরে পদত্যাগ করলেন তিন পঞ্চায়েত প্রধান

তিনি যদি দলীয় সভাপতি নির্বাচিত হন তাহলে দলের কেউ আপত্তি করবে না, এমনটাই জানিয়েছেন দিলীপ ঘোষ।উত্তরবঙ্গের মাটি থেকেই কাউকে রাজ্য বিজেপি পদে বসানো হতে পারে এমন সম্ভাবনাই প্রথম থেকে প্রবল হয়ে উঠেছে। এবার এই পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষিত , তরুণ সাংসদ সুকান্ত মজুমদার রাজ্য বিজেপি সভাপতি হ‌ওয়ার দৌড়ে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন। এছাড়াও দিলীপ ঘনিষ্ঠ দেবশ্রী চৌধুরীও এই তালিকায় রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

তবে দিলীপ ঘোষ বলেছেন যে, “আমার সাথে জে পি নাড্ডার এই বিষয়ে কোনো রকম কথা হয়নি। তাছাড়া উনার সাথে বিগত একমাস আমার কোনো কথা হয়ে ওঠেনি।”

Related Articles

Back to top button