নিউজদেশপলিটিক্সরাজ্য

কলকাতায় ফিরলেন না ধনখড়। আরো একদিন থাকবেন দিল্লিতে।

নিজস্ব প্রতিবেদন: একুশের ভোটের পর থেকেই বাংলার মাটি রক্তাক্ত হয়ে উঠেছে বিভিন্ন হিংসাত্মক ঘটনাকে কেন্দ্র করে। রাজ্যের এই হিংসাত্মক পরিস্থিতিকে কেন্দ্র করে সুপ্রিম কোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছিল যাতে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা যায়। রাজ্যের এই হিংসাত্মক পরিস্থিতির অভিযোগে রাজ্যপালের কাছে সাক্ষাৎ করতে গিয়েছিলেন বিজেপির মোট ৫০ জন বিধায়ক।

বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর নেতৃত্বে রাজ্যপালের সাথে দেখা করেছেন তারা।শুভেন্দু অধিকারীর সাথে বৈঠকের ২৪ ঘন্টা কাটার আগেই রাজ্যপাল গিয়েছেন দিল্লিতে। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দিল্লির উদ্দেশ্যে র‌ওনা দিয়েছেন রাজ্যপাল। তিনি তিনদিন থাকবেন দিল্লিতে এমনটাই জানা গিয়েছিলো।

আরও পড়ুন-জামালপুরে বিক্ষোভ গাঢ় হচ্ছে সুনীল মন্ডলের বিরুদ্ধে। রাবণ বানিয়ে দেওয়া হল পোস্টার

ব তিনি কলকাতা ফিরবেন আগামী ১৮ ই জুন এমনটাই স্থির হয়েছিলো কিন্তু জানা গিয়েছে ১৮ তারিখ না ফিরে একদিন থেকে রাজ্যপাল আজ শনিবার কলকাতায় প্রত্যাবর্তন করবেন।রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সাথে তিনি দেখা করেছেন। রাজ্যের আইন শৃঙ্খলার অবনতি হয়েছে এই মর্মে তিনি রাষ্ট্রপতি কে একটি রিপোর্ট দিয়েছেন। ‌ এরপর তিনি দেখা করেছেন কয়লা মন্ত্রী এবং সংস্কৃতি মন্ত্রীর সাথে।

আরও পড়ুন-বিজেপির শীর্ষনেতাদের বৈঠকে এলেন না খোদ শুভেন্দুই।

গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাতটায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সাথে তিনি বৈঠক সম্পন্ন করেছেন। ‌ জানা গিয়েছে দীর্ঘক্ষন এই বৈঠকে রাজ্যপাল সবিস্তারে বাংলা মাটিতে হিংসাত্মক পরিস্থিতি এবং আইন শৃঙ্খলার অবনতি সম্পর্কে অমিত শাহের সাথে আলোচনা করেছেন এবং অমিত শাহের হাতে একটি রিপোর্ট তুলে দিয়েছেন। রাজ্যের বর্তমান আইন শৃঙ্খলা অবনতি, ভোট পরবর্তী হিংসাত্মক পরিস্থিতি এবং প্রশাসনে নীরব ভূমিকা নিয়ে অমিত শাহ কে অভিযোগ জানিয়েছেন রাজ্যপাল।

তবে জানা গিয়েছে রাজ্যপালের এই কর্মকাণ্ডে কিছুটা বিরক্ত হয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। অমিত শাহ জানিয়েছেন যে, রাজ্যপালকে এই মুহূর্তে নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করতে হবে কারণ তিনি দিনের-পর-দিন বিরোধীদলের কটাক্ষের শিকার হচ্ছেন।

Related Articles

Back to top button